মধ্যরাতে বড় লোকের ক্লাবে ‘মদ খেতেন’ পরীমনি

বড় লোকের ক্লাব হিসেবে পরিচিত রাজধানীর বিভিন্ন অভিজাত ক্লাব ও তারকা হোটেলে মধ্যরাতে গিয়ে মদ খেতেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। এ সময় সঙ্গে থাকতেন পরীমনির কস্টিউম ডিজাইনার জিমিসহ কয়েকজন তরুণ-তরুণী।

পুলিশের তদন্তে এমনই অভিযোগ করেছেন একাধিক অভিজাত ক্লাবের কর্মকর্তারা।

এদিকে পরীমনির বিরুদ্ধে গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলবে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা বোট ক্লাবের ঘটনার পর পরীমনির বিভিন্ন বিষয় খতিয়ে দেখতে মাঠে নেমেছে পুলিশ। নিয়ম ভেঙে কয়েকটি সোশ্যাল ক্লাবে মধ্যরাতে এই নায়িকার যাতায়াত ও মদ্যপানের বিষয়েও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।

এদিকে কয়েকটি অভিজাত ক্লাবের কর্মকর্তারা পুলিশকে জানিয়েছেন, মধ্যরাতে নিয়ম ভেঙে পরীমনির জন্য বার খোলা রাখতে হতো।

অপরদিকে বনানী থানা পুলিশ গুলশানের একটি অভিজাত ক্লাবের বার বয়ের বক্তব্য জানতে যোগাযোগ করেছে। অভিযোগ রয়েছে, মধ্যরাতে বার ব্যবহারে অসম্মতি জানালে জালাল নামের ওই বার বয়ের গালে চড় মারেন পরীমনি।

পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা জানান, ৮ জুন রাতে বোট ক্লাব কাণ্ডের তদন্তে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আসছে। ঢাকার একাধিক সোশ্যাল ক্লাবের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পরীমনি তার কস্টিউম ডিজাইনার জিমিসহ কয়েকজন তরুণ-তরুণী নিয়ে প্রায় রাতেই অভিজাত ক্লাব ও তারকা হোটেলে ঘুরে বেড়াতেন। ক্লাবের নিয়ম ভেঙেই মধ্যরাত পর্যন্ত চলত মদ্যপান।

এদিকে গুলশান পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, গত ৩ জুন রাত ১২টার পর পরীমনি তার সাবেক স্বামী তামিম হাসান এবং  দুটি বেসরকারি টেলিভিশনের দু’জন কর্মকর্তাকে নিয়ে গুলশানের একটি অভিজাত ক্লাবে যান। তারা তখন মদ্যপ ছিলেন। ক্লাবে ঢুকেই পরীমনি ও তাঁর সঙ্গীরা বার ব্যবহার করতে চান। এতে বার বয় জালাল অসম্মতি জানালে তার গালে চড় বসিয়ে দেন পরীমনি।

ক্লাব কর্মকর্তারা ঘটনা জানালে গুলশান থানা পুলিশের দুটি পিকআপ ভ্যান ঘটনাস্থলে আসে। এরপর পরীমনিকে বুঝিয়ে বাসায় পাঠিয়ে দেয় পুলিশ।

প্রসঙ্গত, গত রোববার (১৩ জুন) সন্ধ্যায় নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ করেন পরীমনি। স্ট্যাটাসে তিনি বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহায্য প্রার্থনা করেন। এ ঘটনায় সাভার থানায় মামলা হলে গ্রেফতার হন মূল অভিযুক্ত নাসির উদ্দিন মাহমুদ, তুহিন সিদ্দিকী অমিসহ পাঁচজন। তাদের কাছ থেকে মাদক উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (১৫ জুন)  আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদ (৬৫) ও তুহিন সিদ্দিকী অমিরের (৩৩) সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন ঢাকা মহানগর হাকিম নিভানা খায়ের জেসি। অপরদিকে ওইদিনই রাজধানীর মিন্টো রোডের গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে কথা বলার জন্য ডাকা হয় পরীমনিকে।

আলোকিত চট্টগ্রাম

1 মন্তব্য
  1. পিনাকী দাশ বলেছেন

    ভোগবাদী পুরুষ এবং তার আধিপত্যে আজ আক্রান্ত সমাজ এবং রাষ্ট্রযন্ত্র, এমনকি সাংবাদিকতা পেশাও এই দুষ্টক্ষত মুক্ত নয়! নারীর চরিত্র এবং তার পদচারণা সবকিছুই নিয়ন্ত্রণ হয় এই দৃষ্টিকোণ থেকে!!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm