ভয়ংকর ‘গ্যাং লিডার’—টিনুকে ১৪ দিনের মধ্যেই আত্মসমর্পণ

নগরের চকবাজার এলাকার ‘কথিত’ যুবলীগ নেতা ও ‘কিশোর গ্যাং লিডার’ নূর মোস্তফা টিনুর জামিন বাতিল করা হয়েছে। তাঁকে ১৪ দিনের মধ্যে আদালতে আত্মসমর্পণের আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

২০১৯ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামে শুদ্ধি অভিযানে র‍্যাবের হাতে অস্ত্রসহ আটক হয়েছিল ‘কিশোর গ্যাং’ লিডার নূর মোস্তফা টিনুসহ তার সহযোগী জসিম উদ্দীন। নগরের চকবাজার কাপাসগোলা এলাকা থেকে একটি বিদেশি পিস্তলসহ তাকে আটক করে র‍্যাব-৭। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী বাসায় তল্লাশি চালিয়ে একটি শর্টগান ও ৬৭ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

র‍্যাব বাদি হয়ে পাঁচলাইশ থানায় অস্ত্র আইনে নূর মোস্তফা টিনু ও তার সহযোগী জসিমের নামে মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত প্রথমে পুলিশ করলেও, পরবর্তীতে আদালতের নির্দেশে তদন্ত করে র‍্যাব। দীর্ঘদিন কারাগারে থাকার পর চলতি বছর ২৩ জানুয়ারি অস্থায়ী জামিনে মুক্তি পান টিনু।

গত ২২ এপ্রিল রাষ্ট্রপক্ষ টিনুর জামিন বাতিল চেয়ে হাইকোর্টের আপিল বিভাগে পিটিশন দায়ের করলে শুনানি শেষে আদালত গত(২৩ মে)টিনুর জামিন বাতিল করেন।

আদেশে বলা হয়, আসামি নূর মোস্তফা টিনুকে বিচারিক আদালতে দুই সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণ করতে হবে।

প্রসঙ্গত, নূর মোস্তফা টিনুর বিরুদ্ধে নগরীর চকবাজার ও পাঁচলাইশ থানা এলাকায় ‘কিশোর গ্যাং’ নিয়ন্ত্রণ, চাঁদাবাজি ও বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপে জড়িত থাকার বহু অভিযোগ রয়েছে। র‌্যাবের শুদ্ধি অভিযানে আটকের পর ঝিমিয়ে পড়া গ্রুপের হাল ধরেন টিনুর ভাই নুরুল আলম শিপু। তার বিরুদ্ধেও ছিনতাইসহ একাধিক মামলা বিচারাধীন রয়েছে। ২০১৮ সালে নগর পুলিশের তৈরি করা কিশোর গ্যাংয়ের ‘গডফাদার’ তালিকায় টিনুর নাম প্রথম সারিতেই।

জানুয়ারি মাসে জামিনে আসার পর টিনুর কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা আবারও এলাকায় বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে জানায় স্থানীয়রা।

আলোকিত চট্টগ্রাম

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm