‘ভেজাল বাণিজ্য’—এক কোম্পানির মোড়কে অন্য কোম্পানির ওষুধ

নগরের কোতোয়ালী থানার একটি দোকানে ভেজাল ওষুধ বিক্রির অভিযোগে দুই যুবককে আটক করেছে র্যাব। এ সময় ওই দোকান থেকে ৩ হাজার ৬৪১টি ভেজাল ওষুধ উদ্ধার করা হয়।

রোববার (১৩ মার্চ) সন্ধ্যায় কোতোয়ালী থানার ২৯ নম্বর জহুর শপিং সেন্টারের মেসার্স যমুনা মেডিসিন সপ নামে দোকান থেকে এসব ওষুধ উদ্ধার করে র্যাব-৭ এর একটি দল। সোমবার (১৪ মার্চ) বিকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেন র্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নূরুল আবছার।

আরও পড়ুন: ভেজাল রঙ মিশিয়ে জরিমানা গুনল নাসিরাবাদের ডেজার্ট অ্যান্ড বেকারি

আটকরা হলেন- সাতকানিয়া থানার দক্ষিণ কাঞ্চনা এলাকার হিমাংশু দাসের ছেলে লিটন দাস (৪৩) ও হাটহাজারী থানার মোহাম্মদপুর এলাকার মো. জালাল উদ্দিনের ছেলে মো. আব্দুল আলী চৌধুরী (৩৫)।

বিষয়টি নিশ্চিত করে র্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নূরুল আবছার আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, নগরের কোতোয়ালী থানার ২৯ নম্বর জহুর শপিং সেন্টারের মেসার্স যমুনা মেডিসিন সপে এক কোম্পানির ওষুধের মোড়কে অন্য কোম্পানির মোড়ক লাগিয়ে ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করা হচ্ছিল।

এ অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে দুজনকে আটক করি। পরে ওই দোকানে তল্লাশি চালিয়ে ৩ হাজার ৬৪১টি ভেজাল ওষুধ উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, তারা দীর্ঘদিন ধরে বেশি লাভের আশায় এক কোম্পানির ওষুধের মোড়ক পরিবর্তন করে আরেক কোম্পানির মোড়ক লাগিয়ে বিক্রির কথা স্বীকার করেন। আইনানুগ প্রক্রিয়া শেষে তাদের সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়।

এএইচ/এসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm