‘ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট’ কাঁপছে দেশ—৬৮ শতাংশ রাজধানীতে, চট্টগ্রামে কত?

‘ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টে’ কাঁপছে দেশ। রাজধানী ঢাকায় করোনা আক্রান্তের ৬৮ শতাংশ নমুনায় পাওয়া গেছে ভারতীয় ডেল্টা ধরন (ভ্যারিয়েন্ট)! এ অবস্থায় আতঙ্ক বাড়ছে চট্টগ্রামেও।

চট্টগ্রামে কোনোভাবেই করোনার লাগাম টানা যাচ্ছে না। ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টে আসার পরপরই চট্টগ্রামে বাড়ছে করোনা রোগী। ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে করোনা রোগী বেড়েছে দেড়গুণেরও বেশি। আবার চট্টগ্রামে করোনায় মৃত্যুর মিছিলও প্রতিদিন শুধু বাড়ছেই।

এদিকে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র বাংলাদেশের (আইসিডিডিআর’বি) গবেষণায় উঠে এসেছে ভীতি-জাগানিয়া তথ্য। রাজধানীতে করোনায় আক্রান্তদের ৬৮ শতাংশের নমুনায় পাওয়া গেছে ভারতীয় ডেল্টা ধরন (ভ্যারিয়েন্ট)।

আইসিডিডিআর’বির জ্যেষ্ঠ বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সম্প্রতি একটি গবেষণায় ৬০টি নমুনার জিনোম সিকোয়েন্সিং করা হয়। সেগুলোর ৬৮ শতাংশ নমুনায় ভারতীয় ধরন পাওয়া গেছে। বাকি নমুনায় মধ্যে ২২ শতাংশে দক্ষিণ আফ্রিকা ও নাইজেরিয়া ধরন পাওয়া গেছে।

এদিকে ভারতীয় ধরনসহ করোনার অন্যান্য ধরনের বিস্তার রোধে সবাইকে সঠিকভাবে মাস্ক ব্যবহার এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

এর আগে চট্টগ্রামেও ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট পাওয়ার দাবি করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। তবে চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের কত শতাংশ তা নিয়ে এখন পর্যন্ত কোনো গবেষণা হয়েছে কি-না, কিংবা হলেও এর ফলাফল প্রকাশ হয়নি।

করোনার নতুন ধরনের ব্যাপারে আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. তাহমিনা শিরীন বলেন, করোনার ধরন নতুন কোনো বিষয় নয়। যত জিনোম সিকোয়েন্সিং করা হবে ততোই নতুন নতুন ধরনের আবির্ভাব হবে। ধরন যা-ই হোক, স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

তিনি বলেন, যতটুক সম্ভব ঘরে অবস্থান করতে হবে। বাইরে বের হলে সঠিকভাবে মাস্ক পরতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। স্যানিটাইজার কিংবা সাবানপানি দিয়ে হাত ধুতে হবে।

কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় পরামর্শক কমিটির অন্যতম সদস্য ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম বলেন, যেসব এলাকায় সংক্রমণ বেশি সেখানে কঠোর লকডাউন কার্যকর করতে হবে। না হলে ওইসব এলাকায় সংক্রমণ বাড়বে, বাড়বে মৃত্যুও। সেইসঙ্গে দেশের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়বে ওই সংক্রমণের ঢেউ।

আলোকিত চট্টগ্রাম

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm