‘ব্যাংকারের মৃত্যু’—বিয়ের ৬ মাসের মাথায় চলে গেলেন এই তরুণ

মাত্র ছয় মাস আগে বিয়ে করে ঘর বেঁধেছিলেন ২৮ বছরের তরুণ ব্যাংকার ফারুক আবদুল্লাহ (২৮)। বিয়ের পর স্ত্রীর অন্তঃসত্ত্বাে খবর সংসারে আনন্দের বন্যা নিয়ে আসে। কিন্তু সেই আনন্দ মিলিয়ে যেতে সময় লাগেনি। দুমাস আগে তার শরীরে ধরা পড়ে মরণব্যাধি ক্যান্সার। আর সেই প্রাণঘাতী ক্যান্সারের কাছে হার মেনে না ফেরার দেশে চলে গেলেন এই তরুণ।

ফারুক আবদুল্লাহ ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ রহনপুর শাখার ট্রেইনি এ্যাসিটেন্ট অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার বাহারছড়া। সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ১টার দিকে নগরের পাঁচলাইশের পার্কভিউ হাসপাতালে তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

ফারুক আবদুল্লাহ’দর মামা মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, অল্প বয়সে ভাগিনাকে ক্যান্সারের কাছে হার মানতে হলো। দুবছর আগে ইসলামী ব্যাংকে চাকরি নেয়। ৬ মাস আগে বিয়ে করেছিল। বর্তমানে তার স্ত্রী সন্তানসম্ভবা।

আরও পড়ুন: ‘ব্যাংকার’—অফিসের চেয়ারেই মৃত্যু, কাছে যেতে পারলেন না কেউ

দুই মাস আগে হঠাৎ ক্যান্সার ধরা পড়ে ফারুকের ২৮ আগস্ট তাকে নগরের পার্কভিউ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। অল্প সময়ে ক্যান্সারের কাছে হার মেনে না ফেরার দেশে চলে গেলেন এই তরুণ ব্যাংকার

সোমবার দুপুর ২টায় বাঁশখালী উপজেলার বাহারছড়া উচ্চবিদ্যালয় মাঠে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে লাশ দাফন করা হয় বলে জানান ফারুকের মামা নিজাম উদ্দিন।

সিএম/এসি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm