বিধিনিষেধ : জীবিকার কথাও ভাবছে সরকার, চোখ মঙ্গলবারে

দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়ার কারণে চলছে ‘কঠোর বিধিনিষেধ’। ৫ আগস্ট পর্যন্ত চলমান বিধিনিষেধের সময়সীমা নির্ধারণ করেছে সরকার।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, লকডাউন চললেও সংক্রমণ-মৃত্যুতে তার প্রভাব সেভাবে দেখা যাচ্ছে না। এদিকে বিশেষজ্ঞরা লকডাউনের পক্ষে কথা বললেও মানুষের জীবিকার বিষয়টিও ভাবতে হচ্ছে সরকারকে।

এ পরিস্থিতিতে করণীয় ঠিক করতে মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) এক জরুরি সভায় বসছেন সরকারের নীতিনির্ধারকরা।

আরও পড়ুন: ‘করোনার হটস্পট’—৩ জেলার চেয়েও বেশি ‘শনাক্ত-মৃত্যু’ চট্টগ্রামের ৪ উপজেলায়

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হবে এই সভা। সোমবার (২৬ জুলাই) মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম আরও জানান, সংক্রমণ কমাতে বিশেষজ্ঞরা লকডাউনের পক্ষে বললেও তা আবার মানুষকে জীবিকার সংকটে ফেলছে। বিষয়টি নিয়েও সরকারকে ভাবতে হচ্ছে।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লকডাউন দিয়ে রাখলেও সংক্রমণ-মৃত্যু কোনোটিই কমছে না। এই পরিস্থিতিতে করণীয় কী, তা ঠিক করতেই এই সভার আয়োজন করা হয়েছে।

৫ আগস্টের পর বিধিনিষেধের মেয়াদ আবারও বাড়ানো হবে কি-না জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, মঙ্গলবারের সভায় বিষয়টি ফাইনাল হবে।

প্রসঙ্গত, সোমবার (২৬ জুলাই) আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা শনাক্ত ও করোনা রোগীর মৃত্যুূর ক্ষেত্রে নতুন রেকর্ড হয়েছে।

জেডএইচ
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm