বাবা মদ বেচেন—ছেলে গাঁজা

আব্দুল মান্নান ওরফে ‘মদ মান্নান’ ও নোমান সম্পর্কে পিতা-পুত্র। তবে তাদের ব্যবসা আলাদা। বাবা বিক্রি করেন চোলাই মদ আর ছেলে গাঁজা। ডবলমুরিং থানা পুলিশ তাদেরসহ ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে রোববার (২৫ জুলাই)।

নগরের সুপারিওয়ালা পাড়ার বাসা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- আব্দুল মান্নান ওরফে মদ মান্নান (৫৪), মো. নোমান (২৬), আল আমিন (৩০), মো. তাহের (২১), শহিদুল ইসলাম (২০), মো. সুমন (২৪), মো. ফয়সাল (২৮) এবং মো. হানিফ (২৫)।

Thai Food

জানা যায়, ডবলমুরিং থানার সুপারিওয়ালা পাড়ার শীর্ষ চোলাই মদ বিক্রেতা আব্দুল মান্নান ওরফে মদ মান্নান সিএমপির তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। সে দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় মদ বিক্রি করে আসছিলেন। আর ছেলে নোমান বিক্রি করেন গাঁজা। তারা দু’জন করোনাকালীন সময়ে লকডাউনকে কাজে লাগিয়ে তাদের নিজ বাসায় বসাতো মাদকের রমরমা আসর।

এ বিষয়ে ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ডবলমুরিং থানা সুপারিওয়ালা এলাকার আব্দুল মান্নান ওরফে মদ মান্নান একজন সিএমপির তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। আর তার ছেলে নোমান একজন গাঁজা বিক্রেতা। লকডাউনকে কাজে লাগাতে তাদের নিজ বাসায় বসাতো মাদকের রমরমা আসর। গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তার নিজ ঘর থেকে আব্দুল মান্নান ও তার ছেলে নোমানসহ ৮ জনকে গ্রেফতার করি। এসময় তাদের কাছ থেকে ২০ লিটার চোলাই মদ ও ৬০০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, শীর্ষ চোলাই মদ বিক্রেতা মান্নানের বিরুদ্ধে ১০টি ও তার ছেলে নোমানের বিরুদ্ধে ২টি মামলা রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এএইচ/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm