হারবাং ফাঁসিয়াখালী বমুবিলছড়িতে চমক

চকরিয়ার তিন ইউনিয়নে প্রথমবারের মতো আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছিলেন তাঁরা। নৌকার প্রতীক নিয়ে প্রথমবারেই চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে চমক সৃষ্টি করেছেন এ তিনজন। তাঁরা হলেন মঞ্জুরুল কাদের, মেহেরাজ উদ্দিন মিরাজ ও হেলাল উদ্দিন হেলালী।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বমুবিলছড়ি, হারবাং ও ফাঁসিয়াখালী থেকে তাঁরা প্রথমবারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের রির্টানিং ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো.শহিদুল ইসলাম বলেন, বেসরকারিভাবে প্রাপ্ত ফলাফলে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও উপজেলা যুবলীগ সদস্য হেলাল উদ্দিন হেলালী ৩ হাজার ৩৭৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকের প্রার্থী মো. কুতুব উদ্দিন পেয়েছেন ৩ হাজার ৭১ ভোট।

আরও পড়ুন: ইউপি নির্বাচন—রাঙ্গুনিয়া চকরিয়া পেকুয়ায় `বিদ্রোহীদের’ চমক

বমুবিলছড়ি ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রির্টানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা কৃষি অফিসার এসএম নাসির হোসেন বলেন, এই ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো.মঞ্জরুল কাদের ২ হাজার ১৬১ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আবদুল মতলব পেয়েছেন ১ হাজার ২০৭ ভোট।

হারবাং ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রির্টানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা সমবায় অফিসার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মেহেরাজ উদ্দিন মিরাজ পেয়েছেন ৬ হাজার ৩৩৮ ভোট। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান মো.জহির উদ্দিন আহমদ বাবর পেয়েছেন ৪ হাজার ৪৫১ ভোট।

প্রথমবার আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় হারাবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেরাজ উদ্দিন মিরাজ আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার উপর পূর্ণ বিশ্বাস ও আস্থা রেখে আমাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। আমার ইউনিয়নে মানুষ প্রধানমন্ত্রীর আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন। আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রামকে শহরে রুপান্তরিত করার যে ভিশন নিয়েছেন সেই ভিশন বাস্তবায়ন করাই হবে আমার মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

মুকুল/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm