ফেসবুক লাইভে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা, স্বামীকে ঝুলতে হবে ফাঁসির দড়িতে

ফেসবুক লাইভে এসে হত্যা করেছিল স্ত্রীকে, এখন সেই অপরাধে নিজেকেও ঝুলতে হবে ফাঁসির দড়িতে। ফেনীতে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলায় স্বামীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) এ হত্যার রায় ঘোষণা করেন ফেনী জেলা ও দায়রা জজ ড. বেগম জেবুন্নেছা।

২০২০ সালের ১৫ এপ্রিল পারিবারিক কলহের জেরে ফেসবুক লাইফে এসে স্ত্রী তাহমিনা আক্তারকে কুপিয়ে হত্যা করেন স্বামী ওবায়দুল হক টুটুল। ফেনী শহরের বারাহিপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তাহমিনার বাবা সাহাব উদ্দিন বাদী হয়ে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

আরও পড়ুন: শহর থেকে ছুরি কিনে মিরসরাইয়ে গিয়ে বাবা—মা—ভাইকে হত্যা করে ঘরের বড় ছেলে

পরিবারসূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালে কুমিল্লা জেলার গুনবতী এলাকার আকদিয়া গ্রামের সাহাবুদ্দিনের মেয়ে তাহমিনা আক্তারের সঙ্গে ওবায়দুল হক টুটুলের প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকে আর্থিক অসচ্ছলতা নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায় ঝগড়া হতো।

এরইমধ্যে স্বামী টুটুল মেয়ের পরিবারের কাছ থেকে বেশকিছু টাকাও নেন। কিন্তু আরও টাকার জন্য চাপাচাপি করলে তারা দিতে অস্বীকৃতি জানান। একপর্যায়ে ২০২০ সালের ১৫ এপ্রিল দুপুরে ফেসবুক লাইভে এসে স্বামী টুটুল তার স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে।

পরে হত্যাকারী টুটুল নিজেই পুলিশকে মোবাইল ফোনে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকারীকে গ্রেপ্তার করে এবং হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত দা ও ফেসবুকে প্রচার চালানো মোবাইল জব্দ করে।

এসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm