ফটিকছড়ি ‘লকডাউন’—রাত ৮টার পর যা যা বন্ধ হচ্ছে চট্টগ্রাম নগরে

চট্টগ্রামে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে নগরে আরও কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হচ্ছে। এর অংশ হিসেবে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নগরে রাত ৮টার পর সব ধরনের দোকান-মার্কেট বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার (২২ জুন) চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত করোনা প্রতিরোধে গঠিত জেলা কমিটির সমন্বয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এস এম জাকারিয়া আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত আগামীকাল থেকে রাত ৮টার পর নগরে ওষুধের দোকান ছাড়া সব ধরনের দোকানপাট বন্ধ থাকবে। মার্কেট-শপিংমলও বন্ধ করতে হবে রাত ৮টার মধ্যেই। একইসময়ের পর হাট-বাজারও খোলা রাখা যাবে না।

তিনি বলেন, তবে হাসপাতালসহ জরুরি সেবা প্রতিষ্ঠানগুলো খোলা থাকবে। বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে মাঠে থাকবে মোবাইল কোর্ট।

এদিকে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলায় ২৩ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত আট দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, লকডাউন চলাকালে উপজেলায় সব হোটেল-রেস্তোরাঁ বন্ধ এবং সব ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ থাকবে। ওষুধের দোকান ছাড়া মুদি দোকান ও কাঁচাবাজার সকাল ৭টা থেকে ১১টা এবং দুপুর ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। এসময় ফটিকছড়ির সঙ্গে অন্যান্য উপজেলার যান চলাচল বন্ধ থাকবে।

চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আগামীকাল (বুধবার) থেকে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। উপজেলায় করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জেডএইচ

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm