প্রেমিকাকে ‘পতিতা’ বানাতে গিয়ে শ্রীঘরে যুবক

চেয়েছিলেন প্রেমিকার সংসার ভাঙতে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই কথিত প্রেমিকের ঠাঁই হলো শ্রীঘরে।

এক সময় ভুক্তভোগী তরুণীর সঙ্গে সম্পর্ক ছিল রবিউলের। সেই সময়ের ঘনিষ্ঠ কিছু ছবিও সংগ্রহে ছিল তাঁর। কিন্তু প্রেমিকার বিয়ে অন্যত্র হয়ে গেলে তার সংসার ভাঙতে মরিয়া হয়ে ওঠেন রবিউল।

কিন্তু শেষমেষ রোববার (১৬ জানুয়ারি) র‌্যাবের হাতে আটক হন সেই রবিউল আউয়াল (২২)।

রবিউলের বাড়ি বাঁশখালীর দক্ষিণ সাধনপুর এলাকায়। তাঁর বাবার নাম দিদারুল আলম।

আরও পড়ুন : স্ত্রীকে তালাক দিয়েও প্রেমিকাকে পেল না—মধ্যরাতে যা করল যুবক

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, ৬ জানুয়ারি অটোরিকশাযোগে পরিবার নিয়ে ওই তরুণী স্বামীর সঙ্গে শ্বশুরবাড়ি থেকে নিজবাড়ি ফিরছিলেন। পথে বাঁশখালী গুনাগরি এলাকায় তাদের অটোরিকশার গতিরোধ করেন রবিউল। থামানোর কারণ জানতে চাইলে রবিউল ওই ব্যক্তিকে তার স্ত্রী সম্পর্কে আজেবাজে কথা বলতে থাকেন। তবে তার স্বামী সেসব কথা পাত্তা না দিয়ে চলে যান।

পরদিন ওই ব্যক্তির স্ত্রীর আপত্তিকর ছবিসহ ’পতিতা’ সম্বোধন করে ফেসবুকে পোস্ট দেন রবিউল। বিষয়টি নিয়ে গত ৯ জানুয়ারি নগরের পতেঙ্গা থানায় জিডি করা হয় এবং একই সঙ্গে র‌্যাব কার্যালয়েও অভিযোগ জমা দেওয়া হয়। এরপর র‌্যাব রোববার অভিযান চালিয়ে রবিউলকে গ্রেপ্তার করে।

র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল এমএ ইউসুফ বলেন, গ্রেপ্তার রবিউল ফেসবুকে আপত্তিকর ছবি দিয়ে তরুণীর সংসার ভাঙতে চেয়েছিলেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদেও সেই কথা স্বীকার করেছেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পতেঙ্গা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

আলোকিত চট্টগ্রাম
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm