এ যেন সিনেমার গল্প—প্রেমিকাকে খুন করে প্রেমিকের আত্মহনন

রাউজানে পরিত্যক্ত একটি ঘরে ছুরিকাঘাতে প্রেমিকাকে খুনের পর দড়িতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন প্রেমিক। পরে পুলিশ এসে দুজনের লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার পাহাড়তলী ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মুহামুনি বড়ুয়াপাড়া গ্রামর সুব্রত মুৎসুদ্দির বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- অন্বেষা চৌধুরী আশা (১৮) ও জয় বড়ুয়া (২৬)।

আরও পড়ুন: ‘বিআরটিসি টেন্ডারবাজি’ শ্রমিক লীগ নেতার ১৫ ছুরির আঘাতে যুবক খুন

Yakub Group

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অন্বেষার সঙ্গে জয়ের দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। আগামী ১০ মার্চ রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়া গ্রামের এক প্রবাসীর সঙ্গে অন্বেষার বিয়ের আয়োজনের প্রস্তুতি চলছিল।

পুলিশের ধারণা প্রেমিক জয় বড়ুয়া প্রেমিকা অন্বেষাকে খুন করে নিজেই আত্মহত্যা করেছে।

নিহত কলেজছাত্রী অন্বেষা চৌধুরী উপজেলার নোয়াপাড়া ডিগ্রি কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি পাহাড়তলী ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মহামুনি গ্রামের উদয়ন চৌধুরী বাড়ির ওষুধ ব্যবসায়ী রণজিৎ চৌধুরীর মেয়ে। তিন বোনের মধ্যে অন্বেষা সবার বড়।

জয় বড়ুয়া একই ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ভগবান দারগার বাড়ির চা দোকানি নিলেন্দু বড়ুয়ার ছেলে। তিনি এক ভাই এক বোনের মধ্যে বড়।

অন্বেষা চৌধুরী বাবা বাবলু বড়ুয়া বলেন, কিছুদিন আগে আমার মেয়ের বিয়ে ঠিক হয়। আগামী মার্চের ১০ তারিখ বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। সব আয়োজনের কেনাকাটা নিজে করেছিল তার মাকে নিয়ে।

আরও পড়ুন: ৫ খুন—জুম চাষের বিরোধেই, ৪ ছেলেসহ পাড়াপ্রধানকে কুপিয়ে হত্যা

রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল হারুন আলোকিত চট্টগ্রামকে বলের, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে থেকে দুজনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে।

তিনি আরও বলেন, তাদের দুজনের মধ্যে সম্ভবত প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তাই মেয়েটির বিয়ের খবর শুনে তাকে হত্যা করে ওই তরুণ নিজেই আত্মহত্যা করতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শফি/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm