প্রধানমন্ত্রীর ঘর উপহারের নামে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠল ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ঘর দেওয়ার প্রলোভনে হতদরিদ্রদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে।

আনোয়ারা উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জসিম কয়েকজনের কাছ থেকে ১২ হাজার টাকা করে নেন। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাও নেওযা হচ্ছে।

জানা যায়, আনোয়ারা উপজেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ৬০০ ঘরের মধ্যে প্রাথমিকভাবে ৬৫টি ঘর নির্মাণ করে ভূমিহীনদের নিকট হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত হয়। এজন্য প্রত্যেক ইউনিয়ন থেকে ইউপি সদস্য ও চেয়ারম্যানদের মাধ্যমে ভুমিহীন ও গৃহহীনদের তালিকা নেওয়া হয়। বারখাইন ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জসিম উদ্দিন স্থানীয় মো. সেলিম, শহীদুল ইসলাম, নুর বেগম ও ফরিদা বেগমের নাম তালিকাভুক্ত করার জন্য ইউএনও ও প্রকল্প কর্মকর্তাকে টাকা দেওয়ার কথা বলে প্রত্যেকের কাছ থেকে ১২ হাজার টাকা করে নেন।

আরও পড়ুন: অস্ত্র উঁচিয়ে মার খেল ইউপি মেম্বার, রক্তাক্ত ৩ জনকে পুলিশে দিল জনতা

Thai Food

পরে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর না পেয়ে মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে শহীদুল ইসলাম ও ফরিদা বেগম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর জসিমের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এরপর দুপুরে ইউএনও কার্যালয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানিতে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ইউপি সদস্য জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) জামিরুল ইসলাম আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, সোমবার আমার কাছে একজন মহিলা ও একজন পুরুষ এসে ইউপি সদস্য জসিমের বিরুদ্ধে ঘর দেওয়ার নামে টাকা নেওয়ার অভিযোগ করেন। আমি তাঁদের ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ দিতে বলি। তাঁরা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

ইউএনও শেখ জোবায়ের আহমদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর দেওয়ার নামে দুজন আমার কাছে অভিযোগ করলে আমি সঙ্গে সঙ্গে সবার উপস্থিতিতে শুনানি করি। শুনানিতে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় অভিযুক্ত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইমরান/এসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm