ছাত্রীকে উত্যক্ত—ছুরি চালিয়ে হাতুড়িপেটা করা হলো প্রতিবাদী প্রধান শিক্ষককে

চকরিয়ায় ইভ টিজিংয়ে বাধা দেওয়ায় স্কুলের প্রধান শিক্ষককে ছুরিকাঘাত ও হাতুড়িপেটা করেছে বখাটের দল।

শুক্রবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯টায় উপজেলার চিরিঙ্গা ইউনিয়নের চরণদ্বীপ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

হামলায় গুরুতর আহত শিক্ষকের নাম মো. সালেহ উদ্দিন (৪০)। তিনি চরণদ্বীপ উপকূলীয় ভূমিহীন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং একই ইউনিয়নের মৃত হাজী মৌলানা হাবিবুর রহমানের ছেলে।

আহতের ভাই মো.শরীফুল ইসলাম জানান, বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার সময় নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে প্রতিনিয়ত উত্যক্ত করত স্থানীয় আবদুল হাফেজের ছেলে ইব্রাহিম খলিলসহ আরও ৪-৫ জন বখাটে। এ নিয়ে ইতোমধ্যে বেশ কয়েববার বিচারও হয়। এক সপ্তাহ আগে একই ঘটনা ঘটলে আবারও বিচার হয়। বিচারে মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পায় বখাটে ইব্রাহিম ও খলিল।

Yakub Group

আরও পড়ুন: ‘পাঠদান বন্ধ’ রেখে—স্কুল চলাকালীন এমপির দুই অনুষ্ঠানে প্রধান শিক্ষক!

এ ঘটনার জের ধরে শুক্রবার রাত ৯টার দিকে মো. সালেহ উদ্দিন স্থানীয় ফুলকাটা সড়কের মাথায় পৌঁছলে বখাটে ইব্রাহিম ও খলিলের নেতৃত্বে ৪-৫ জন বখাটে অতর্কিত তার ওপর হামলা চালায়। বখাটেরা তাঁকে ছুরিকাঘাত ও হাতুড়িপেটা করে। এ সময় সালেহ উদ্দিনের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে বখাটেরা পালিয়ে যায়।

পরে স্থানীয়রা তাঁকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এরপর উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে জানতে জানতে চাইলে চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মু. ওসমান গণি আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। তবে এ ঘটনায় কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। এরপরও শিক্ষকের ওপর হামলাকারীদের ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে।

মুকুল/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm