মৃত্যুঝুঁকিতে পারাপার ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজে, যেকোনো মুহূর্তেই ভেঙে পড়ার শঙ্কা

মিরসরাইয়ের স্টেশন সড়কের ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। ব্রিজের রেলিং ভেঙে গেছে। গার্ডারের পলেস্তারা খসে পড়েছে। ব্রিজের ওপরে সৃষ্টি হয়েছে বড় গর্ত। এ অবস্থায় প্রতিদিন মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে পথচারী থেকে শুরু করে খাদ্য গুদামের গাড়িসহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করছে।

জানা গেছে, মিরসরাই সদর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর তালবাড়ীয়া গ্রামের স্টেশন সড়কের ব্রিজটি গ্রামের ৬ হাজার মানুষের একমাত্র চলাচলের মাধ্যম। এ সড়কের ব্রিজটি দিয়ে মিরসরাই পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন, উপজেলা খাদ্যগুদাম, মিরসরাই বিসিক শিল্পনগরীতে যাতায়াত করা হয়। স্বাধীনতার আগে নির্মিত ৫০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১৮ ফুট প্রস্থের ব্রিজটি এখন ঝুঁকিপূর্ণ। স্টেশন সড়কটি কিছুদিন আগে সংস্কার করা হলেও ব্রিজটিতে উন্নয়নের কোনো ছোঁয়া লাগেনি। ব্রিজ নির্মাণে কোনো ধরনের উদ্যোগ না নেওয়ায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

মিরসরাই সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আজহারুল হক চৌধুরী নওশা মিয়া বলেন, স্টেশন সড়কের ব্রিজটি পাকিস্তান আমলে নির্মাণ করা হয়। স্বাধীনতাযুদ্ধের পরে ব্রিজের ওপরের অংশ ভেঙে পুনরায় তৈরি করা হয়। এরপর ব্রিজটিতে আর কাজ হয়নি।

আরও পড়ুন: রোহিঙ্গারা ভাসানচর ছাড়ছে দলে দলে, দুই কারণে ‘স্টপেজ’ মিরসরাই

মিরসরাই সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. এমরান উদ্দিন বলেন, মিরসরাই স্টেশন সড়কের ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটি পুনর্নির্মাণের জন্য উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কাছে নাম দেওয়া হয়েছে। শিগগির ব্রিজের টেন্ডার দেওয়া হবে।

ভাঙা ব্রিজ

উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সামছুন্নাহার স্বর্ণা বলেন, স্টেশন সড়কটি দিয়ে উপজেলা খাদ্য গুদামের গাড়ি ঝুঁকি নিয়ে নিয়মিত যাতায়াত করছে। ব্রিজটি যেকোনো সময় ভেঙে পড়তে পারে। এমন হলে খাদ্য গুদামের গাড়ি যাতায়াতে প্রতিবন্ধকতার পাশাপাশি খাদ্য সরবরাহেও বিঘ্ন ঘটবে। ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটির বিষয়ে আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করেছি।

আরও পড়ুন: শিক্ষা কর্তার বাড়িতে ‘অসামাজিক’ কাজ, ৭ নারী-পুরুষকে ধরল জনতা—ছাড়ল পুলিশ

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) সাইফুল্লাহ মজুমদার বলেন, স্টেশন সড়কের ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটি পুনর্নির্মাণের জন্য টেন্ডার তালিকায় নাম রাখা হয়েছে। করোনা মহামারীর কারণে গত ২৪ মার্চ থেকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় নতুন করে টেন্ডার দেওয়ার প্রক্রিয়া বন্ধ রেখেছে। টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হলে ব্রিজটির নামও দেওয়া হবে।

সড়কটি যেহেতু খুবই গুরুত্বপূর্ণ তাই ব্রিজের কাজ করার আগে যানবাহন চলাচলের জন্য বিকল্প সড়ক নির্মাণ করতে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে তিনি অনুরোধ করেন।

আজিজ/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm