সন্ত্রাসের অভিশাপ থেকে শান্তির জনপদে পরিণত হয়েছে রাউজান

রাউজান উপজেলা জ্ঞানী-গুণী, কবি-সাহিতিক, সাংবাদিকের জন্মভুমি । রাউজানে একসময় স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির লালিত সন্ত্রাসীদের কাছে জিম্মি ছিল। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কারণে একসময় এটি সন্ত্রাসের জনপদ হিসেবে দেশে পরিচিত ছিল। কিন্তু বর্তমান সরকারের শাসন আমলে সন্ত্রাসের অভিশাপ থেকে মুক্ত করে শান্তির জনপদে রূপান্তর করা হয়েছে রাউজানকে।

হলদিয়া এয়াসিন শাহ পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, রাউজানে ইতিহাস ও ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে আওয়ামী লীগ, নেতা, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ভূমিকা রেখেছে।

পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক মো. নুরুল আজিমের সভাপতিত্বে ও সচিব জিয়াউল হক চৌধুরী সুমনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ নিরীক্ষক নিয়ন্ত্রক মো. মুসলিম উদ্দিন চৌধুরী।

তিনি বলেন, আমার জন্মভূমি রাউজান। এই রাউজানকে একটি সমৃদ্ধশালী উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। গ্রামীন জনপদের স্কুল-কলেজে লেখাপড়া করেও প্রতিষ্ঠিত হওয়া যায়।

আরও পড়ুন : রাউজানও পেল ভারতের লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্স

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. সুলতান আহম্মদ, উপজেলা চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দার বাবুল ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগ।

বক্তব্য রাখেন রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্ল্যাহ আল হারুন, হলদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, এয়াসিন শাহ কলেজের অধ্যক্ষ কৃষিবিদ মো. জাহাঙ্গীর আলম, এয়াসিন শাহ কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি এসএম বাবর, এয়াসিন শাহ পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাহাবুল আলম।

এর আগে এয়াসিন শাহ কলেজের নবনির্মিত একাডেমিক ভবন উদ্বোধন এবং সুবর্ণজয়ন্তী ভবনের নির্মাণকাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন ফজলে করিম চৌধুরী এমপি। এ সময় শিক্ষার্থীদের মাস্ক বিতরণ করা হয়।

পরে সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে প্রকাশিত ‘সৌহার্দ্য’র মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিরা।

শফিউল/ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm