স্কুলে যাওয়ার পথেই লাশ ছাত্রী, প্রতিবাদে ৩ ঘণ্টা রাস্তা অবরোধ

প্রতিদিনের মতো টমটম করে স্কুল যাচ্ছিল ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী মাহিয়া জন্নাত নুসরাত (১৬)। কিন্তু স্কুলে আর যাওয়া হলো না তার। পথেই ট্রাকের ধাক্কায় লাশ হয়ে ফিরতে হলো মাহিয়াকে।

সোমবার (১৮এপ্রিল) সকাল ১০টার দিকে চকরিয়া-মহেশখালী সড়কের লালব্রীজ সংলগ্ন পেট্রল পাম্পের সামনে পণ্যবাহী ট্রাকের ধাক্কায় টমটম থেকে ছিটকে পড়ে স্কুলছাত্রী মাহিয়াসহ কয়েকজন যাত্রী। পরে গুরুতর আহত মাহিয়াকে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন: ফেসবুকে পোস্টের ১ ঘণ্টা পরেই লাশ যুবক

এদিকে মাহিয়ার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে জমিলা বেগম স্কুলের শিক্ষার্থী ও স্থানীয় লোকজন রাস্তায় টায়ার ও গাছ ফেলে অবরোধ করে প্রতিবাদ জানায়। এতে প্রায় তিন ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশের আশ্বাস অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।

নিহত মাহিয়া জন্নাত নুসরাত পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের ঈদমণি এলাকার মমতাজ উদ্দিনের বড় মেয়ে।

ইলিশিয়া জমিলা বেগম স্কুলের শিক্ষক টিটু কান্তি সুশীল আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, দশম শ্রেণির ছাত্রী মাহিয়া জন্নাত টমটম করে স্কুলে আসছিল। লালব্রীজ পেট্রল পাম্পের সামনে পৌঁছলে হঠাৎ পণ্যবাহী ট্রাক টমটমকে ধাক্কা দিলে খাদে পড়ে যায়। এতে গুরুতর আহত হয় মাহিয়া। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন: হাটহাজারীতে দুই অটোরিকশার সংঘর্ষে ‘লাশ’ নারী, পরিচয় মিলেনি

ঘটনাস্থলে থাকা চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, ট্রাকের চালক-হেলপারকে আইনের আওতায় আনা হবে। তাদের ধরতে অভিযান চলছে। আমাদের আশ্বাসের পর তারা রাস্তা থেকে অবরোধ তুলে নিয়েছে। যান চলাচল এখন স্বাভাবিক রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নিহতের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

মুকুল/আরবি

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm