‘পারিবারিক অশান্তি’—মৃত্যুর পথ বেছে নিলেন গৃহিণী, পালাল স্বামী

লোহাগাড়ায় খুরশিদা বেগম (৩৫) নামে এক গৃহিণী পারিবারিক কলহের কারণে আত্মহত্যা করেছেন।

তিন সন্তানের জননী খুরশিদা উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের ডোয়ার আলী সিকদার পাড়ায় জাফর আহমদের স্ত্রী। এ ঘটনার পর তার স্বামী পলাতক রয়েছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৩ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) সকাল ৯টার দিকে পারিবারিক কলহের জেরে বাড়ির বিমের সঙ্গে গামছা পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেন ওই গৃহিণী। পরে বাড়ির লোকজন তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পুলিশে খবর দেন।

স্থানীয়রা জানান, খুরশিদা ও জাফরের সংসারে কলহ লেগেই ছিল। বৃহস্পতিবার ইউপি সদস্য ও স্থানীয় ব্যক্তিরা তাদের পারিবারিক কলহের সমস্যা সমাধান করেন।

আরও পড়ুন: মেয়েকে ছাদে পাঠিয়ে মায়ের আত্মহত্যা

পদুয়া ইউপি সদস্য লেয়াকত আলী বলেন, স্বামী-স্ত্রীর মাঝে প্রায় সময় ঝগড়া হতো। গতকাল দুপুরেও তার বাড়িতে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সমস্যার সমাধান করে দিয়েছিলাম।

লোহাগাড়া থানার এসআই পার্থসারথি হাওলাদার ঘটনাস্হল পরিদর্শন করে লাশটি উদ্ধার করেন। এরপর সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠান।

লোহাগাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকের হোসাইন মাহমুদ বলেন, এলাকার লোকজন আত্মহত্যার বিষয়টি থানায় জানায়। পুলিশ ঘটনাস্হল থেকে লাশটি উদ্ধার করে। নিহতের গলায় দাগ রয়েছে। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তার স্বামী জাফর ঘটনাস্হল হতে পালিয়ে যান।

সাত্তার/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm