‘নির্যাতনের চিহ্ন’ পেল পুলিশ, তাস খেলার ৭০ টাকার জন্য যুবক খুন

মিরসরাইয়ে তাস খেলাকে কেন্দ্র করে নিহত মো. বাহার মিয়ার (৩৪) শরীরে নির্যাতনের চিহ্ন পেয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনায় রিদোয়ান নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ।

সোমবার তাস খেলায় ৭০ টাকার জন্য ঝগড়ায় প্রাণ হারায় বাহার। এ ঘটনায় তার স্ত্রী শামীমা আকতার বাদি হয়ে রিদোয়ানকে আসামি করে অজ্ঞাত ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) রাতে ওসমানপুর ইউনিয়নে নানার বাড়ি থেকে রিদোয়ানকে গ্রেপ্তার করা হয়।

নিহত বাহারের বড় ভাই নুর নবী বলেন, মূল আসামি রিদোয়ানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে বাকি আসামিরাও ধরা পড়বে। তাস খেলতে লাগে চারজন। বাকি তিনজনেই বাহারকে মারধর করেছে। এ ঘটনায় জড়িত সকল আসামিকে গ্রেপ্তার এবং এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

আরও পড়ুন: ‘তাস খেলে’—ঘরে ফিরে হঠাৎ বমি, মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ল যুবক

স্থানীয় ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জসিম উদ্দিন বলেন, অটোরিকশাচালক বাহার মিয়া ও রিদোয়ানসহ চারজন একসঙ্গে তাস খেলেন। এতে বাহার পরাজিত হয়। তাদের মধ্যে ৭০ টাকা নিয়ে ঝগড়া হয়েছে। তারপর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর বাহার মারা যায়।

জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর হোসেন মামুন বলেন, ময়নাতদন্ত শেষে বাহার মিয়া মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে নিহত বাহারের স্ত্রী শামীমা আক্তার বাদি হয়ে রিদোয়ানকে প্রধান আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার পরপরই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তদন্তে ঘটনার মূল রহস্য বেরিয়ে আসবে।

আজিজ/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm