ফেসবুকে পোস্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে আনোয়ারা রণক্ষেত্র, নির্বাচনি সংঘর্ষে রক্তাক্ত ১১

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে আনোয়ারায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের ১১ জনের আহত হওয়ার খবর মিলেছে।

সোমবার (২০ ডিসেম্বর) বিকালে উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের চুন্নাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে আহতরা হলেন- আবদুল মান্নান (৪৩), ওয়াসিম চৌধুরী (২২), মো. এনাম (২২), জানে আলম (৩১), আবুল কাশেম (২২), হৃদয় (১৮), পারভেজ (২০), গিয়াস উদ্দিন (৩৫), মো. আরফাত (২৫), জানে মনির (২২) ও আরফাত (২৩)।

আরও পড়ুন: বিরিয়ানি নিয়ে সংঘর্ষে জড়াল আওয়ামী লীগের দুই পক্ষ, রক্তাক্ত ৩ জন হাসপাতালে

Yakub Group

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, চুন্নাপাড়া গ্রামের হাজিরপাড়া এলাকার আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী জানে আলমের সমর্থক মনির নামে এক যুবক ফেসবুকে একটি পোস্ট দেয়। এ নিয়ে আজ (সোমবার) সকালে একই এলাকার কয়েকজন যুবক মনিরের উপর হামলা চালায়।

বিকালে আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিন শরীফের সমর্থকেরা এলাকায় প্রচারণায় বের হয়ে চুন্নাপাড়া গ্রামের গোদারপাড়া এলাকায় পৌঁছলে দুই পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। একপর্যায়ে উভয়পক্ষ একে অপরকে ইট-পাটকেল ছুঁড়লে বেশ কয়েকজন আহত হন।

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিন শরীফ বলেন, প্রতীক বরাদ্দের পর আমার লোকজন নির্বাচনি প্রচারণায় গেলে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিজ চৌধুরীর নেতৃত্বে আমার সমর্থকদের উপর হামলা করা হয়। হামলায় ১০-১৫ জন আহত হয়েছে। আমি আহতদের নিয়ে হাসপাতালে ব্যস্ত আছি। আগামীকাল মঙ্গলবার সকালে আমি এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করব।

এদিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জানে আলম বলেন, মাদক নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ায় মনিরের উপর আমিন শরীফের লোকজন হামলা করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিকালে নির্বাচনি প্রচারণায় দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন: ভোট শুরুর আগেই সীতাকুণ্ডে সংঘর্ষ—দুই যুবক আটক, সঙ্গে ১০ পেট্রলবোমা

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম দিদারুল ইসলাম সিকদার আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, রায়পুর ইউনিয়নের চুন্নাপাড়া এলাকায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো পক্ষ থানায় অভিযোগ করেননি।

ইমরান/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm