নিখোঁজের ৪ দিন পর মিলল বস্তাবন্দী লাশ—খুনের অভিযোগ মালিকের বিরুদ্ধে

বাঁশখালী থানার তৈলারদ্বীপ ব্রিজের পাশে একটি বিলে শুক্রবার (২৯ অক্টোবর) বস্তাবন্দী একটি গলিত লাশ পাওয়া গেছে।

লাশটি গাড়িচালক মো. শাহ আলমের বলে জানা গেছে। তিনি গত চারদিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন।

শাহ আলম কুমিল্লার গৌরিপুর ইউনিয়নের দাউদকান্দি থানার বালুয়াকান্দি এলাকার বাসিন্দা। তিনি চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালী থানার পশ্চিম আগ্রাবাদ ব্যাপারীপাড়ায় পরিবার নিয়ে বসবাস করছিলেন৷

জানা গেছে, শাহ আলম দীর্ঘদিন ধরে গাড়ি চালান। গত ২৬ অক্টোবর সকাল ৭টায় গাড়ির মালিক বদরুজ্জামানকে নিয়ে পটিয়া যান তিনি। এরপর বিকাল থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। তবে তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরটি খোলা ছিল।

শাহ আলমের পরিবারের পক্ষ থেকে গাড়ির মালিক বদরুজ্জামানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, নিখোঁজের দিন বিকাল ৪টায় শাহ আলম তাকে কোর্ট বিল্ডিংয়ের সামনে নামিয়ে দেয়। এরপর থেকে তার সঙ্গে যোগাযোগ হয়নি।

নিখোঁজের তিনদিন পর ২৮ অক্টোবর শাহ আলমের মেয়ে আয়েশা আক্তার বাদি হয়ে কোতোয়ালী থানায় অভিযোগ করেন। পরে কোতোয়ালী থানা পুলিশ শাহ আলমের মুঠোফোন ট্র্যাকিং করে দেখে বিকাল ৪টা পর্যন্ত তিনি পটিয়ায় ছিলেন।

Thai Food

আরও পড়ুন : নিখোঁজ না অপহরণ—রাউজানে একসঙ্গে দুই বোনের খোঁজ নেই

এরপর ২৯ অক্টোবর বিকালে বাঁশখালী থানার তৈলারদ্বীপ এলাকার একটি বিলে বস্তাবন্দী গলিত লাশ পাওয়া। পরে লাশটি শাহ আলমের বলে শনাক্ত করে তার পরিবার।

শাহ আলমের মেয়ে আয়েশা আক্তার বলেন, আমার বাবা দীর্ঘদিন ধরে গাড়ি চালান। আমার বাবাকে নিয়ে মেরে ফেলেছে। আমার বাবা হয়ত বদরুজ্জামানের কুকর্মের কোনো কিছু দেখে ফেলেছে, তাই তাকে মেরে ফেলেছে।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নেজাম উদ্দিন আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, নিখোঁজ শাহ আলমের মেয়ে থানায় একটি অভিযোগ করার পর আমরা তার মোবাইল নম্বরটি ট্র্যাকিং করে দেখি, ২৮ অক্টোবর বিকাল ৪টা পর্যন্ত লোকেশন পটিয়ায় ছিল। আজকে তার পরিবার জানাল বাঁশখালীতে একটি অজ্ঞাত লাশ পাওয়া গেছে। লাশটি শনাক্তের জন্য বাঁশখালীর উদ্দেশ্য রওনা দিয়েছে তারা।

বাশঁখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন বলেন, তৈলারদ্বীপ ব্রিজের পাশে বস্তাবন্দী একটি লাশ পাওয়া গেছে। চারদিন আগে পটিয়া থেকে নিখোঁজ শাহ আলমের পরিবারকে খবর দেওয়ার পর তারা এসে লাশটি শনাক্ত করেছে। এ ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

সিএম/ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm