ঘোষণার দিনই প্রত্যাহার নারীদের ‘বিশেষ জোন’

কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে নারী পর্যটকদের নিরাপত্তার জন্য নির্ধারণ করা ‘বিশেষ জোন’ ঘোষণার ১০ ঘণ্টার মধ্যেই প্রত্যাহার করে নিয়েছে জেলা প্রশাসন।

‘বিশেষ জোন’ নিয়ে পর্যটকসহ বিভিন্ন মহলে ব্যাপক সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন : নারী—শিশুর জন্য কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে আলাদা জোন

বুধবার (২৯ ডিসম্বর) রাত ১০টায় এ জোন বাতিলের বিষয় নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (পর্যটন সেল) মো. আবু সুফিয়ান।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, জেলা প্রশাসন পর্যটকদের মতামতের ওপর সবসময় শ্রদ্ধাশীল। বিভিন্ন সময়ে পর্যটকদের মধ্যে অনেকে অনুরোধ করেছেন নারী ও শিশু পর্যটকের জন্য বিশেষ জোন থাকলে ভালো হয়। সেই বিবেচনায় বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সিদ্ধান্তে পৃথক এলাকা চিহ্নিত করে নারী ও শিশুদের জন্য বিশেষ জোন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। বিশেষ জোনে যাদের ইচ্ছে যাবেন, অন্য পর্যটকরা তাদের মতো ঘুরবেন।

তিনি আরও বলেন, এ সংক্রান্ত সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারের পর বিষয়টি নিয়ে বিরূপ মতামত পাওয়া গেছে। তাই পর্যটকদের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে নারী ও শিশুদের জন্য বিশেষ জোন চালু রাখার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এর আগে বুধবার দুপুরে বিশেষ জোন উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম, ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন উদ্দিন এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা নূরুল আফসার উপস্থিত ছিলেন।

বলরাম/ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm