নাইটগার্ড সেজে ইপিজেডে লুকিয়ে ছিল ধর্ষক বোমা জাহিদ

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পরিচয়ে পোশাক শ্রমিকের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন জাহিদ হাসান নামের এক যুবক। একপর্যায়ে বিয়ের কথা বলে তাকে ঢাকায় নিয়ে যান তিনি। সেখানকার একটি হোটেলে তাকে ধর্ষণ করে নগদ টাকা, সোনার চেইন নিয়ে চট্টগ্রামে পালিয়ে আসেন। এরপর দীর্ঘদিন নগরের একটি ফ্যাক্টরিতে নাইটগার্ডের ছদ্মবেশে আত্মগোপনে ছিলেন জাহিদ।

তবে পরিচয় গোপন করে শেষ রক্ষা হয়নি তার। মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) ইপিজেড থানার এমজেডএম ফ্যাক্টরি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তিনি ওই ফ্যাক্টরিতে নাইটগার্ড হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

গ্রেপ্তার জাহিদ হাসান যশোরের বাঘারপাড়া এলাকার মৃত আকবর সরদারের ছেলে। তিনি ৯ মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি।

আরও পড়ুন: ফিল্মি স্টাইলে তরুণীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করল ৫ পাষণ্ড, ধরা খেল ২ ধর্ষক

এদিকে বুধবার (১৯ অক্টোবর) বিষয়টি আলোকিত চট্টগ্রামকে নিশ্চিত করেন র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার।

Yakub Group

তিনি বলেন, এক বছর আগে একজন পোশাককর্মীর সঙ্গে জাহিদের মোবাইলে পরিচয় হয়। জাহিদ নিজেকে সেনাবাহিনীর একজন অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য এবং র‌্যাব সদস্য বলে পরিচয় দেন। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে সখ্যতা গড়ে উঠে। পরে বিয়ের কথা বলে তাকে ঢাকায় নিয়ে যায় জাহিদ। সেখানে একটি হোটেলে তাকে ধর্ষণ করে নগদ টাকা ও সোনার চেইন নিয়ে পালিয়ে চট্টগ্রাম চলে আসেন। পরে ভিকটিম রমনা মডেল থানায় মামলা করেন। সেই মামলায় জাহিদকে নগরের ইপিজেড এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গ্রেপ্তার জাহিদ সরকার যশোরে জাহিদ সরদার বা বোমা জাহিদ নামে পরিচিত। তিনি যশোর জেলার বাঘারাপাড়া এলাকার একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও মাদক কারবারি। যশোর জেলার বাঘারপাড়া এবং কোতোয়ালী থানায় তার বিরুদ্ধে অস্ত্র, ডাকাতি, মাদক, প্রতারণা, বিস্ফোরণসহ নয়টি মামলা রয়েছে। এসব মামলায় গ্রেপ্তার এড়াতে যশোর থেকে পালিয়ে তিনি চট্টগ্রাম আসেন।

এনইউএস/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm