দূর হচ্ছে কর্ণফুলীর ‘অগ্নিভয়’

অবশেষে দূর হতে যাচ্ছে কর্ণফুলী উপজেলার ‘অগ্নিভয়’। ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে এ উপজেলায় নির্মিত হচ্ছে আধুনিক ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। যেখানে থাকবে নার্স, অ্যাম্বুলেন্স, ডুবুরিসহ সবধরনের সুবিধা ।

২০১৬ সালে ৫টি ইউনিয়ন নিয়ে স্বতন্ত্র উপজেলা হিসেবে পথচলা শুরু করে কর্ণফুলী উপজেলা। এর চার বছর পর ১০২ শতক জমিতে চারতলার অত্যাধুনিক এই ফায়ার সার্ভিসটি নির্মিত হচ্ছে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার আরাকান সড়কের শিকলবাহায়। ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সঙ্গে গড়ে তোলা হবে আধুনিক ট্রেনিং সেন্টারও। এটি নির্মাণে টেন্ডার প্রক্রিয়াও ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে বলে উপজেলা পরিষদ সূত্র নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, কর্ণফুলী নদীর দক্ষিণ পাড়ে কর্ণফুলী উপজেলার চরপাথরঘাটা, শিকলবাহা, চরলক্ষ্যা, বড়উঠান ও জুলধা ইউনিয়নে গড়ে উঠেছে ছোট-বড় ১১৭টি শিল্প প্রতিষ্ঠান। কর্ণফুলী নদীর অবকাঠামোগত আর শাহ আমানত সেতুর আধুনিয়কায়ন সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে উন্নত যোগাযোগ, সহজ শ্রমিক পাওয়া ও কম মজুরিতে জনশক্তি প্রাপ্তির সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে নিত্যনতুন শিল্পকারখানা গড়ে উঠছে। এখানে গড়ে উঠেছে জাহাজ শিল্প, ইস্পাত শিল্প, সিমেন্ট শিল্পসহ অনেক বড় বড় শিল্পকারখানা। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে ফায়ার স্টেশন না থাকায় শিল্পকারখানা ও বসববাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে আনোয়ারা, পটিয়া, আগ্রাবাদ থেকে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের আসতে হয়।

আরও পড়ুন: জোড়া খুনের ৫ আসামি পুলিশের জালে—৩ জন হাসপাতালে

Thai Food

ফায়ার সার্ভিস অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, সারাদেশে ১১টি আধুনিক ফায়ার সার্ভিস নির্মিত হচ্ছে। এর মধ্যে কর্ণফুলী উপজেলায় একটি। প্রকল্পের জন্য প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৬২৯ কোটি ৭৩ লাখ ৫৫ হাজার টাকা।

ডায়মন্ড সিমেন্ট লিমিটেড পরিচালক লায়ন হাকিম আলী আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, কর্ণফুলী উপজেলায় বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ শিল্পকারখানা গড়ে উঠেছে। বর্তমানে এখানে মেরিন একাডেমি থেকে শুরু করে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান ও শতাধিক শিল্পপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। এই উপজেলা একটি শিল্পজোনে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে। এখানে ফায়ার স্টেশন না থাকায় অগ্নিকাণ্ডে কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হতো। বর্তমানে একটি আধুনিক ফায়ার স্টেশন নির্মাণ হতে যাচ্ছে এটা সবার কাছে অত্যন্ত আনন্দের সংবাদ।

কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক চৌধুরী বলেন, কর্ণফুলী উপজেলায় ব্যাপক শিল্পায়ন হওয়ার পাশাপাশি বেড়েছে অগ্নিঝুঁকি। কর্ণফুলীর সর্বস্তরের মানুষের স্বপ্ন ছিল একটি আধুনিক ফায়ার সার্ভিস স্টেশন নির্মাণের। ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপির সহযোগিতায় সেই স্বপ্নপূরণে নির্মাণকাজ চলছে। আশা করি নির্দিষ্ট সময়েই কাজ শেষ হবে।

ইমরান/আরবি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm