প্রতিবেশীর ঘরে আত্মগোপনে থেকেও বাঁচতে পারল না দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী জালাল

পেকুয়ায় অস্ত্র ও গুলিসহ দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী জালাল আহমদকে (৪২) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৫।

বুধবার (৩০ মার্চ) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের উত্তর সুন্দরীপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে ছয়টি বন্দুক, আট রাউন্ড গুলি ও তিনটি রামদা উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন: ৫ অস্ত্র সঙ্গে নিয়ে র‌্যাব ধরল দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী নুমাইত্যাকে

এদিকে গ্রেপ্তার জালালকে আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব-১৫। অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার জালাল আহমদ একই এলাকার মো. শরীফের ছেলে ও দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী আনছারুল ইসলাম টিপু বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড।

র‌্যাব-১৫ এর সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. বিল্লাল উদ্দিন বলেন, গোপন সংবাদে সন্ত্রাসী জালাল আহমদকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার এড়াতে তিনি প্রতিবেশী জহিরের ঘরে আত্মগোপনে ছিলেন। পরে তার দেখানো মতে পুকুর পাড়ে লুকিয়ে রাখা ছয়টি দেশি বন্দুক, আট রাউন্ড গুলি, গুলির একটি খোসা ও তিনটি রামদা উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন: ‘রক্তাক্ত র‌্যাব’—সন্ত্রাসী ধরতে গিয়ে দা’র কোপ খেল র‌্যাবের ৪ সদস্য

তিনি আরও বলেন, জালাল আহমদের বিরুদ্ধে হত্যা, চাঁদাবাজি, মারামারি, জমি দখল, চুরি, ডাকাতি, ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ বিভিন্ন থানায় নয়টি মামলা রয়েছে। এরমধ্যে তিনটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে।

এ বিষয়ে পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, জালালকে আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে থানায় হস্তান্তর করেছে র‌্যাব-১৫। অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় র‌্যাব-১৫ এর একজন কর্মকর্তা বাদি হয়ে মামলা করেছেন।

মুকুল/আরবি

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm