সাতকানিয়ায় থেমে থেমে গোলাগুলি, শিশু নিহতের ঘটনায় মামলা—ইউপি মেম্বারকে নিয়ে গেছে পুলিশ

সাতকানিয়ায় দুই ইউপি সদস্যের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ৭ জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (৮ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮ টার দিকে উপজেলার কাঞ্চনা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের আনোয়ারুল উলুম মাদ্রাসার পশ্চিম পাশে সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- নুর হোসেন (৩২), মো. ইব্রাহীম (৪০), কামরুল ইসলাম (৪০), ইমরানুল হক নয়ন (২০), আব্বাস উদ্দিন (৩২), মো. ইউচুপ (৪০), সেলিম উদ্দিন (৪০) ও আবু ছালেক (৫০)।

গুলিবিদ্ধ গুরুতর আহত নুর হোসেনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ঘটনার পর নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য ফরহাদ উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

Yakub Group

আরও পড়ুন: সংঘর্ষ–গোলাগুলি, শেষ পর্যন্ত জামায়াতের কাছে ধরাশায়ী ‘নৌকা’

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান রমজান আলী বলেন, ভায়রা ভাইয়ের বাড়ি থেকে বের হয়ে চলে যাওয়ার পথে ফরহাদের লোকজন আমার গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে।

বিজয়ী মেম্বার ফরহাদের ভাই মো. রিফাত বলেন, চেয়ারম্যান রমজান আলী ও তার ভায়রা ভাই আবু তৈয়বের নেতৃত্বে বসতঘরে গুলি ও হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়।

এদিকে সাতকানিয়ায় সোমবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ভোটের দিন উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্রের বাইরে দুর্বৃত্তের দায়ের কোপে শিশু তাসিফ নিহতের ঘটনায় আজ (বুধবার) বিকালে তার বাবা জসিম উদ্দিন ৭০-৮০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

তবে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাজালিয়ার ভোটকেন্দ্রে আব্দুল শুক্কুর নিহতের ঘটনায় মামলা হয়নি বলে ওসি আবদুল জলিল জানিয়েছেন।

অন্যদিকে আজ (বুধবার) সকালে নলুয়া, খাগরিয়া ও বাজালিয়া পরিদর্শন করেছেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত উপমহাপুলিশ পরিদর্শক (ক্রাইম) জাকির হোসেন।

যোগাযোগ করা হলে সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল জলিল বলেন, কাঞ্চনায় গুলিবর্ষণের ঘটনায় চেয়ারম্যান রমজান আলী বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলায় নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য মো. ফরহাদ উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জড়িত অন্যদেরকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ডিএ/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm