কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ নিতে গিয়ে তরুণী ধরা

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের এলএ শাখা থেকে ২ কোটি ৮৬ লাখ টাকার ক্ষতিপূরণের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জোহরা বেগম নামে এক তরুণীকে আটক করা হয়েছে।

সোমবার (৮ নভেম্বর) সকালে কক্সবাজারের উখিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে কোতোয়ালী থানা পুলিশ।

আটক জোহরা বেগম (২৫) উখিয়া উপজেলার ওসমানের মেয়ে।

আরও পড়ুন: ইয়াবা বিক্রেতা তরুণীর সঙ্গে ৩ যুবক আটক

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, জোহরা বেগম জালিয়াতির মাধ্যমে একটি রেজিস্টার্ড পাওয়ার অব এটর্নি মূলে এলএ শাখা থেকে চেক উত্তোলনের আবেদন করেন।

ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা পাওয়ার দাতাদের পরিচয় ও তাদের সাথে সম্পর্ক কি জানতে চাইলে জোহরা বলেন, পাওয়ার অব এটর্নি দাতা কাউকে আমি চিনি না। আমার স্বামী আমার পক্ষে পাওয়ার অব এটর্নি দলিল সম্পাদন করেন। আমার স্বামী বিদেশে থাকেন। দুই মাস ধরে তার সঙ্গে আমার যোগাযোগ নেই।

তার কথা সন্দেহজনক মনে হওয়ায় জেলা প্রশাসকের নির্দেশে পাওয়ার দাতা আবুল কালাম শামসুদ্দিন ও আবুহেনা মোস্তফা কামালের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তারা জানান, ক্ষতিপূরণে টাকা তুলতে তারা কাউকে ক্ষমতা বা পাওয়ার দেননি। পরে তাদের জেলা প্রশাসক অফিসে ডাকা হয়।

Thai Food

তারা দলিল দেখে জানান, দলিলে তাদের যে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দেওয়া হয়েছে সেটি সঠিক নয়। বিষয়টি জানার পর অর্থ আত্মসাতের লিখিত অভিযোগ করেন তারা।

আরও পড়ুন: এবার ২২ বছরের তরুণীর কাছে মিলল ভয়ঙ্কর মাদক ‘আইস’

জানা যায়, প্রতারকচক্র ভুয়া লোকদের আবুল কালাম শামসুদ্দিন ও আবু হেনা মোস্তফা কামাল সাজিয়ে পাওয়ার অব এটর্নি দলিলটি সদর সাবরেজিস্ট্রার চট্টগ্রাম অফিসে রেজিস্ট্রি করেন। সে দলিল অনুযায়ী ক্ষতিপূরণের আবেদন করেন।

এ ঘটনায় জেলা প্রশাসন কোতোয়ালী থানায় একটি প্রতারণা মামলা দায়ের করে।

যোগাযোগ করা হলে কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.নেজাম উদ্দীন আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের অভিযোগ ভিত্তিতে কক্সবাজারের উখিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে জোহরা বেগমকে আটক করা হয়। একই অভিযোগে এর আগে আরও তিনজনকে আটক করা হয়েছিল।

জেলা প্রশাসক মমিনুর রহমান বলেন, দুর্নীতি, অনিয়ম ও প্রতারণার বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসন কঠোর ভূমিকা পালন করে থাকে। এ প্রতারণার সঙ্গে যেই যুক্ত থাকুক না কেন, কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। সবাইকে বিচারের আওতায় আনা হবে।

এএইচ/আরবি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm