এক সপ্তাহেই ডেল্টার ৩ গুণ ওমিক্রন—হঠাৎ পাল্টে গেল পরিস্থিতি, যুক্তরাষ্ট্রে সতর্কতা

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের হ্যারিস কাউন্টিতে সোমবার পঞ্চাশোর্ধ্ব এক করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে, যিনি ওমিক্রনে সংক্রমিত হয়েছিলেন। ওই ব্যক্তি করোনার টিকা নেননি। ধারণা করা হচ্ছে, এটাই যুক্তরাষ্ট্রে ওমিক্রনে প্রথম মৃত্যু।

দেশটি জানিয়েছে, করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন দ্রুত আধিপত্য বিস্তার করছে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে। দেশটির সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন-সিডিসি হালনাগাদ তথ্য অনুযায়ী, গত এক সপ্তাহে করোনা আক্রান্তদের ৭৩.২ শতাংশই ওমিক্রনে সংক্রমিত হয়েছেন। আর ডেল্টায় সংক্রমিত হয়েছেন ২৬.৬ শতাংশ।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের শঙ্কা, ওমিক্রন বিদ্যুৎগতিতে ছড়াতে থাকায় বড়দিন আর নববর্ষের উৎসব ঘিরে পরিস্থিতির বড় ধরনের অবনতি ঘটতে পারে। এ কারণে স্বাস্থ্যবিধির কড়াকড়িও বাড়ানো হচ্ছে বিভিন্ন রাজ্যে।

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামে করোনা : নগরে বাড়ছে বিস্তার

ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র ফের জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন এবং পুরো শহরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছেন।

আগের সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে ডেল্টার আধিপত্য চলছিল। ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সাতদিনে সেখানে যত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে, তাদের ৮৭ শতাংশ সংক্রমিত হয়েছিলেন ডেল্টায়, আর ১২.৬ শতাংশ ওমিক্রনে।

ডিসেম্বরের শুরুতে মোট আক্রান্তের মধ্যে ওমিক্রনের সংক্রমণের শিকার ছিলেন ১ শতাংশেরও কম। কিন্তু হঠাৎই পরিস্থিতি পাল্টাতে শুরু করেছে। ভয়াবহভাবে বিস্তার লাভ করছে করোনার নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট।

যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর-পশ্চিম এবং দক্ষিণ-পূর্বের অনেক এলাকায় ৯৫ শতাংশ করোনা সংক্রমণের পেছনে রয়েছে ওমিক্রন। নিউইয়র্ক সিটিতে শনাক্ত করোনা রোগীর সংখ্যা গত এক সপ্তাহে ৬০ শতাংশ বেড়েছে। করোনা পরীক্ষার কেন্দ্রগুলোতে দেখা যাচ্ছে দীর্ঘ লাইন।

এসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm