ডাক্তার সেজে টিউমার অপারেশন করেন মুদি দোকানের কর্মচারী!

হাটহাজারীতে এক ভুয়া ডাক্তারকে আটক করেছে উপজেলা প্রশাসন। আটক ভুয়া ডাক্তার মো. আবদুল হালিমকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহিদুল আলম মিস্ত্রিঘাটা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করেন।

আবদুল হালিম উপজেলার ১২ নং চিকনদন্ডী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মাজিরপাড়ার মকবুল আহমেদের ছেলে৷

জানা গেছে, ভুয়া ডাক্তার আবদুল হালিম মুদি দোকানের কর্মচারী ছিলেন। প্রাথমিক শিক্ষার গণ্ডি পেরুতে না পারা এই ভুয়া ডাক্তার দীর্ঘদিন ধরে লালিয়ার হাটের মাঝিরপাড়া মিস্ত্রিঘাটায় চেম্বার খুলে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলেন।

তিনি নাকের পলিপ, টিউমার, আঁচিলসহ যেকোনো অপারেশন করেন। কোনো ধরনের চিকিৎসা সরঞ্জাম ছাড়া এক ধরণের এসিড ব্যবহার করে তিনি এই অপারেশন করেন।

Yakub Group

বিভিন্ন সময় সাধারণ মানুষ তাঁর অপচিকিৎসার শিকার হয়ে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়লেও কোনো প্রতিকার পাননি। অবশেষে একজন ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ভুয়া ডাক্তার আবদুল হালিমকে আটক করে লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহিদুল আলম আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আবদুল হালিম নামে প্রাথমিকের গণ্ডি পেরুতে না পারা এই ব্যক্তি চিকিৎসার নামে মানুষকে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে ফেলে প্রতারণা করে আসছিলেন। ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে আটক ও ১ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

সিএম/এসআই

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm