রোহিঙ্গা বউ-জামাইয়ের জমজমাট ‘ইয়াবা’ বাণিজ্য

পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে বিভিন্ন কৌশলে ইয়াবা ব্যবসা করতেন এক রোহিঙ্গা দম্পতি। টেকনাফ সীমান্ত থেকে ইয়াবা সংগ্রহ করে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন মাদকসেবীদের কাছে বিক্রি করতেন। তবে এবার আর শেষ রক্ষা হয়নি। পুলিশের জালে ধরা পড়তে হলো সেই স্বামী-স্ত্রীকে।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) গোপন সংবাদে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের হাদি ফকিরহাট বাজার এলাকায় ঢাকামুখী লেইনে চেকপোস্ট বসানো হয়। এ সময় সিডিএম পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস থেকে ১ হাজার ৪০০ পিস ইয়াবাসহ তাদের আটক করে মিরসরাই থানা পুলিশ।

আটকরা হলেন- কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানার বালুখালী এলাকার ২০ নম্বর ক্যাম্পের নবী হোসেন (৩২) ও তার স্ত্রী ছমিরা আক্তার। তারা দুজনই রোহিঙ্গা নাগরিক।

আরও পড়ুন: মিরসরাইয়ে ইয়াবার ব্যবসা করে ছাত্রলীগ নেতা!

এ বিষয়ে মিরসরাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কবির হোসেন বলেন, আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে হাদি ফকিরহাট এলাকায় গোপন সংবাদে ঢাকামুখী লেইনে চেকপোস্টে সিডিএম পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসে তল্লাশির সময় নবী হোসেন ও ছমিরা আক্তার নামে দুজনকে আটক করা হয়। তারা সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। এসময় ছমিরার হাত ব্যাগ থেকে ১৪০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

Yakub Group

ওসি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে স্বামী-স্ত্রী মিলে কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্ত থেকে ইয়াবা নিয়ে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন এলাকায় মাদকসেবীদের কাছে বিক্রি করত।

ওসি আরও বলেন, একইদিন পৃথক অভিযান চালিয়ে জিআর পরোয়ানাভুক্ত তারেক হোসেন ও বিক্রম বড়ুয়া নামের দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ (বিকালে) তাদের চট্টগ্রাম আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এএ/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm