‘জনস্থানে নারীর নিরাপত্তা’ শীর্ষক ডিইসির কর্মশালা

ডিইসি ফাউন্ডেশনের তত্ত্বাবধানে ‘জনস্থানে নারীর নিরাপত্তা’ শীর্ষক ক্যাম্পেইনে দক্ষতা উন্নয়নে দুদিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। যৌথভাবে এতে সহায়তা করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন, ইউএনডিপি, সিআরআই এবং ইয়ং বাংলা।

গত শুক্রবার ও শনিবার ( ৮ ও ৯ অক্টোবর) নগরের নিউমার্কেট এলাকার একটি হোটেলের সম্মেলন কক্ষে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হয় শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায়। এতে অতিথি ছিলেন ড. নাজনীন আহমেদ, জেন্ডার অ্যানালাইস্ট শারমিন ইসলাম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড অ্যাডভোক্যাসি এক্সপার্ট অলি আবদুল্লাহ চৌধুরী, হেড অব কমিউনিকেশন মো. আবদুল কাইয়ুম এবং ইউএনডিপির ফিন্যান্স অ্যান্ড এডমিন অ্যাসোসিয়েট দুর্লভ চৌধুরী।

আরও পড়ুন: ডিইসির নতুন কমিটি: সৈকত সভাপতি, আসিফ সম্পাদক

কর্মশালায় সঞ্চালনা ও সভাপতিত্ব করেন ডিইসি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা প্রকৌশলী সোমেন কানুনগো ।

শনিবার (৯ অক্টোবর) দ্বিতীয় দিনের কর্মশালায় দিকনির্দেশনামূলক সেশন পরিচালনা করেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের উপরিচালক সুস্মিতা পাইক, ইউএনডিপি ডিরেক্টর বিথিকা হাসান এবং সিআরআই’র এসিস্ট্যান্ট কোওর্ডিনেটর ইসরাত ফারজানা তন্নী।

দ্বিতীয় দিনে অতিথি ছিলেন সিএমপির উপপুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) বিজয় বসাক। কর্মশালায় চট্টগ্রামের বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ প্রতিনিধিত্বকারীরা অংশ নেন।

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামে করোনায় ‘দুর্দান্ত’ দিন

কর্মশালায় বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর হয়ে গেলেও আমাদের দেশে নারীরা আজও পূর্ণ স্বাধীনতা থেকে বঞ্চিত। জনস্থানে নারীরা আজও নিরাপদ নন। তারা রাস্তাঘাট, গণপরিবহন, শপিংমল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ ঘরে-বাইরে বিভিন্ন জায়াগায় যৌন হয়রানির শিকার হন। নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অবকাঠামোগত পরিবর্তনের পাশাপাশি জনস্থানে নারী ও কিশোরীদের যৌন হয়রানি বন্ধে তরুণ ও কিশোরদের সচেতন করে তুলতে হবে।

শেষে নারীর প্রতি বিদ্যমান নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন করার শপথের মাধ্যমে সফলভাবে দুদিনের কর্মশালার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

আরবি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm