ছাত্রলীগ নেতার ‘ইয়াবা বাণিজ্য’—বাইকে চট্টগ্রামের ২ নেতা যাচ্ছিল ঢাকায়, পথেই ধরা

ইয়াবা বাণিজ্যে জড়িয়ে পড়েছে কতিপয় ছাত্রলীগ নেতাও। একের পর এক ধরা পড়লেও থামছে না এসব নেতাদের ইয়াবা বাণিজ্য। এবার ফেনীতে ধরা পড়লেন চট্টগ্রামের দুই ছাত্রলীগ নেতা। এর আগে চট্টগ্রামে র‌্যাবের হাতে ইয়াবা নিয়ে ধরা পড়ে চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ নেতা হিসেবে পরিচিত এক যুবকও।

ফেনীতে ধরা পড়া দুই ছাত্রলীগ নেতা হচ্ছেন সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী বাবু ও তানভীরুল ইসলাম সাজু। এদের মধ্যে সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী বাবু চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের সদস্য। তিনি নগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীরের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। এছাড়া তানভীরুল ইসলাম সাজু পাহাড়তলী থানা ছাত্রলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক। তিনিও জাকারিয়া দস্তগীরের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

আরও পড়ুন: ইয়াবাসহ ছাত্রলীগ নেতা ডেবিট গ্রেফতার

তবে নগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর ইয়াবাসহ আটক দুই ছাত্রলীগ নেতা তার অনুসারী থাকার বিষয়টি সরাসরি অস্বীকার করেন। জানতে চাইলে আলোকিত চট্টগ্রামকে তিনি বলেন, সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী বাবুকে দুই বছর আগে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আর তানভীরুল ইসলাম সাজুর বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আজকেই তাকে বহিষ্কার করা হবে। তারা আমার অনুসারী ছিল না। সংগঠনের নাম ভাঙিয়ে অনেকেই অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হচ্ছে। যার কারণে সংগঠনের বদনাম হচ্ছে।

জানা যায়, ফেনীতে র‌্যাবের অভিযানে ১৮ লাখ টাকার ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় মোটরসাইকেলে থাকা এই দুই আরোহীর প্যান্টের পকেট থেকে ৩ হাজার ৫৮০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করে র‌্যাব।

র‌্যাব জানায় চট্টগ্রামের পাহাড়তলী থানার দক্ষিণ কাট্টলী গ্রামের ফিরোজ খানের ছেলে মো. সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী (২৭) ও একই এলাকার মো. বাবরের ছেলে তানভিরুল ইসলামকে (২৫) সাড়ে ৩ হাজার ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। ১ সেপ্টেম্বর (বুধবার) রাত ৮টায় তাদের গ্রেপ্তারের পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে জব্দকৃত মালামালসহ তাদের ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়।

গ্রেপ্তার সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী বাবু ছাত্রলীগ নেতা পরিচয়ে দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিল। তানভীরুল ইসলাম সাজু তার সহযোগী হিসেবে ইয়াবা বিক্রি করতেন।

আরও পড়ুন: নেতার ছায়াসঙ্গীও ‘ইয়াবা বাণিজ্যে’, ধরার পর সুর পাল্টালেন!

এর আগে ১০ আগস্ট সাড়ে তিন কোটি টাকার ইয়াবা নিয়ে র‌্যাবের হাতে ধরা পড়েন ওয়াজ উদ্দিন নামের চট্টগ্রাম কলেজের এক ছাত্রলীগ নেতা। কোনো পদে না থাকলেও ওয়াজ চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুভাষ মল্লিক সবুজের অনুসারী হিসেবে পরিচয় দিতেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও একাধিক ছবির খোঁজ মিলেছে দুজনের।

তবে আলোকিত চট্টগ্রামের কাছে অনুসারীর বিষয় পুরোই অস্বীকার করেছিলেন সুভাষ মল্লিক। ওয়াজ উদ্দিনের সঙ্গে আরও একজনকে আটক করে র‌্যাব। ওয়াজ উদ্দিন কক্সবাজারের পেকুয়ার পূর্ব উজানটিয়ার আবুল কালামের ছেলে। আটক হওয়া আরেক ইয়াবা ব্যবসায়ীর নাম রমিজ উদ্দিন। তাঁর বাড়িও চকরিয়ার বদরখালী এলাকায়। তিনি আবু তাহেরের ছেলে বলে জানায় র‌্যাব।

এসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm