‘ছক্কা’ মারার দ্বন্দ্বের সমাপ্তি অস্ত্রের ঝনঝনানিতে, এসএসসি পরীক্ষার্থীসহ রক্তাক্ত ৪

কক্সবাজারের চকরিয়ায় ক্রিকেট খেলায় ছক্কা মারা নিয়ে বিরোধের জের ধরে একপক্ষের হামলায় দুই এসএসসি পরীক্ষার্থীসহ ৪ জন আহত হয়েছে। এদের পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।

শুক্রবার (১১ মার্চ) সকাল ১১টার দিকে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের উত্তর ঘুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন- ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের উত্তর ঘুনিয়া গর্জনিয়াপাড়া গ্রামের মো. হোসেনের ছেলে হাবিব উল্লাহ (১৮), তাঁর বোন মালেকা বেগম (৩৪), একই গ্রামের মো. কামালের ছেলে মো. আইয়ুব (২১) ও সাহাব উদ্দিনের ছেলে সাজীব মিয়া (১৮)।

হাবিব উল্লাহ ও সাজীব মিয়া চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষার্থী। আহতদের মধ্যে হাবিব ও আইয়ুবের আঘাত গুরুতর।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, উপজেলার ফাঁসিয়াখালীর উত্তর ঘুনিয়ার তুলাতুলি মাঠে গর্জনিয়াপাড়ার দুদলের মধ্যে ক্রিকেট খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলার সময় সকাল ১১টার দিকে একটি ছক্কা মারা নিয়ে তর্কাতর্কি হয়। পরে দুপক্ষ খেলা বন্ধ করে বাড়ি ফিরছিল।

আরও পড়ুন: চকরিয়ায় চাকরিতে যাওয়ার আগেই লাশ গ্রাম পুলিশ

খেলায় তর্কাতর্কির সূত্র ধরে গর্জনিয়াপাড়ার মো. ওয়াহিদ ও তাঁর চাচা জামাল উদ্দিনের নেতৃত্ব মিরাজ, হারুণসহ ১০-১৫ জন দা, লোহার রডসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অপরপক্ষের খেলোয়াড়দের ওপর হামলা চালায়। স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

আহত মালেকা বেগম বলেন, ‘পাড়ার ছেলেরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে ক্রিকেট খেলছিল। এসময় দুপক্ষের মধ্যে তর্কাতর্কির খবর শোনার পর আমরা পরিবারের সদস্যরা গিয়ে নিয়ে আসছিলাম। এসময় ওয়াহিদের নেতৃত্বে নিকট আত্মীয়রা গিয়ে আমার ছোট ভাই এসএসসি পরীক্ষার্থী হাবিব উল্লাহকে মারধর করে।

একপর্যায়ে দায়ের কোপে হাবিব ও আইয়ুব গুরুতর আহত হন। প্রতিপক্ষের লোকজন প্রভাবশালী হওয়ায় আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।’

আরও পড়ুন: কক্সবাজারে উত্তাল সমুদ্রে ভেসে গেল কলেজছাত্র

এদিকে জামাল উদ্দিন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তাদের পক্ষের লোকজন প্রথমে আমার ছেলের ওপর আঘাত করে। এতে আমার মাথা ঠিক ছিল না, যা হওয়ার হয়েছে।

যোগাযোগ করা হলে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মু. ওসমান গণি আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, এ ঘটনায় কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মুকুল/এসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm