‘চুরি’ যাওয়া নবজাতক ভিজছিল বৃষ্টিতে, অবশেষে উদ্ধার

বাগোয়ান ইউনিয়নের ব্রাহ্মণহাট এলাকার একটি বাজারে মানসিক ভারসাম্যহীন নারী শুক্রবার (২ জুলাই) রাতে এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। এরপর সন্তানকে দেখতে না পেয়ে কাঁদতে থাকেন ওই নারী।

ওইদিন কে বা কারা তার সন্তানকে চুরি করে নিয়ে যায়। পরে ভোররাতে বাচ্চাটিকে রাস্তায় বৃষ্টিতে ভিজতে দেখে দ্রুত উদ্ধার করে ঘরে নেন বাঁশখালী উপজেলার বাসিন্দা ও রাউজানের ব্রাহ্মণহাটে ভাড়া বাসায় বসবাসকারী সিএনজি টেক্সী গ্যারেজের মালিক বাবলু দত্তের স্ত্রী শিউলি দত্ত (২৬)। পরে তারা বাচ্চাটিকে হাসপাতালে ভর্তি করান।

ঘটনার খবর পেয়ে বাচ্চা উদ্ধারে নামেন রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল হারুন। অবশেষে তিনদিন পর মেমন হাসপাতাল থেকে বাচ্চাটিকে উদ্ধার করেন তিনি। পরে মায়ের কাছে নিয়ে দুধ পান করানো হয় বাচ্চাটিকে।

Thai Food

মঙ্গলবার বিকালে নবজাতকটিকে আনা হয় থানায়। পুলিশ জানায়, নবজাতকটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হবে। এরপর আদালতের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত হবে- নবজাতকটি মানসিক ভারসাম্যহীন মায়ের কাছে নাকি যে নারী চিকিৎসা করাচ্ছেন তার কাছে থাকবেন।

রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল হারুন বলেন, লোকমুখে শুনে আমরা নবজাতক উদ্ধারে অভিযান শুরু করি। পরে আমরা জানতে পারি এক নারী শিশুটিকে নিয়ে গেছেন। মূলত বৃষ্টিতে ভিজতে দেখে এবং নবজাতকের মাকে পাগল দেখে ওই নারী নবজাতককে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করান।

শফিউল/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm