সোডার আড়ালে বিষাক্ত ঘনচিনি আসছে চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে

চট্টগ্রাম বন্দরে ভুয়া ঘোষণার মাধ্যমে আনা আমদানি নিষিদ্ধ ও ক্যান্সার সৃষ্টিকারী ১৯ মেট্রিক টন ঘনচিনি আটক করেছে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস।

বুধবার (২৫ মে) সোডা অ্যাশ আমদানির ঘোষণা দিয়ে আনা চালানটির শতভাগ কায়িক পরীক্ষার মাধ্যমে ১৯ মেট্রিক টন আমদানি নিষিদ্ধ ঘনচিনি ও ১ মেট্রিক টন সোডা অ্যাশ পাওয়া যায় বলে জানায় কাস্টম কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন: জুনেই চট্টগ্রাম বন্দরের ১০৮ বিলাসবহুল গাড়ির চূড়ান্ত নিলাম

কাস্টম সূত্রে জানা যায়, গত ১৮ মে (বুধবার) ডিএসএস এন্টারপ্রাইজ নামে ঢাকার বংশালের একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান সোডা অ্যাশ আমদানির ঘোষণা দিয়ে চালানটি চট্টগ্রাম বন্দরে আনে। চালানটি চীনের জিনদাও বন্দর থেকে এইচ আর হীরা নামে জাহাজে করে চট্টগ্রামে আসে। পরে চালানটি নিয়ে সন্দেহ হলে সেটি দেশের আমদানি-রপ্তানি কাজে শুল্কায়নের জন্য ব্যবহৃত আধুনিক প্রযুক্তির সফটওয়্যার অ্যাসাইকুডা ওয়ার্ল্ড সিস্টেমের মাধ্যমে চালানটি লক করে দেওয়া হয়। পরে চালানটির কায়িক পরীক্ষার মাধ্যমে ঘোষণা বহির্ভূত, আমদানি নিষিদ্ধ ও ক্যান্সার সৃষ্টিকারী ঘনচিনির সন্ধান পাওয়া যায়।

Yakub Group

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের ডেপুটি কমিশনার সালাউদ্দীন রিজভী জানান, আমদানি নিষিদ্ধ এই ঘনচিনি সাধারণ চিনির তুলনায় প্রায় ৫০ গুণ বেশি মিষ্টি। এই ঘনচিনি ক্যান্সার সৃষ্টির জন্য দায়ী। এই আমদানি নিষিদ্ধ পণ্যটি ভুয়া ঘোষণার মাধ্যমে আমদানির জন্য আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আইজেএন/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm