চট্টগ্রাম পাসপোর্ট অফিসে রোহিঙ্গা নারী আটক

চট্টগ্রামে পাসপোর্ট অফিসে এসে আটক হলো এক রোহিঙ্গা নারী।

বৃহস্পতিবার (৩ জুন) সকালে ইন্টারভিউ দিতে আসলে সন্দেহজনক কথাবার্তার কারণে পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তারা তাকে আটক করেন ।

আটক ওই রোহিঙ্গা নারীর নাম সালমা খাতুন (৩৩)।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিসের পরিচালক মো. আবু সাঈদ বলেন, ‘ওই রোহিঙ্গা নারী জাতীয় পরিচয়পত্র ও নাগরিক সনদ জমা দিয়ে পাসপোর্টের আবেদন করেছিলেন। কিন্তু ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় তার কথাবার্তায় সন্দেহ হলে তাকে আটক করা হয়।’

এর আগেও ভূয়া কাগজপত্র দিয়ে পাসপোর্ট বানাতে এসে কয়েক দফায় ৬ রোহিঙ্গা নাগরিক আটক হয়েছিলেন।

এদিকে একের পর এক রোহিঙ্গা ধরা পড়লেও থামছে না পাসপোর্ট বানানোর সেই প্রক্রিয়া। দালালচক্রের মাধ্যমে টাকার বিনিময়ে মিলছে জনপ্রতিনিধিদের মিথ্যা সনদও। রাতারাতি রোহিঙ্গারা বনে যাচ্ছে চট্টগ্রামের বাসিন্দা। আর ওই পাসপোর্ট দিয়ে চলে যাচ্ছে মধ্যপাচ্যসহ মালয়েশিয়ায়।

আদর/আরবি

1 মন্তব্য
  1. Hasan Mahmud বলেছেন

    বাংলাদেশ সরকার রোহিঙ্গাদের বিশেষ পাসপোর্ট ইস্যূ করার সিদ্ধান্ত নিক, পাসপোর্টে রোহিঙ্গা শব্দটি উল্লেখ করে। তাহলে ফেইক পাসপোর্টের প্রবনতা কমবে। ওরা বিভিন্ন দেশে অপরাধ করলে বাংলাদেশের নামেই অপবাদ আসে, এটি রোহিঙ্গা শব্দযোগের কারনে অপবাদটি আসবেনা। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগ্যতায় এ পাসপোর্ট বহিঃর্বিশ্ব গ্রহন করুক।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm