চট্টগ্রামে হু হু করে বাড়ছে করোনা, পশুর হাটে নেই স্বাস্থ্যবিধির বালাই

চট্টগ্রামে হু হু করে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। বুধবার চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয় দিয়েছিল, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ৮০ জনের করোনা শনাক্তের তথ্য। এর মধ্যে নগরেরই ৭৩ জন! প্রতিদিন নগরে করোনা শনাক্ত বাড়লেও স্বাস্থ্যবিধি কিংবা মাস্ক পড়া নিয়ে নেই সচেতনতা।

এদিকে আসন্ন কোরবানি হাটে অতিরিক্ত জনসমাগম হলেও স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো বালাই নেই। হাজারো ক্রেতা-বিক্রেতা মাস্ক ছাড়াই ঘুরছেন। উপেক্ষিত হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাইকিংসহ বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচারণা চালিয়েও মানুষের মাঝে আগ্রহ সৃষ্টি করা যাচ্ছে না। এমন অবস্থা চলতে থাকলে মহামারি পুরনো চেহারায় ফিরে যাবে, পড়তে হবে সংকটে।

এর আগে জেলা প্রশাসন পশুর হাট বসানোকে কেন্দ্র করে ১৭টি নির্দেশনা দিয়েছিল। এসব শর্তের একটি হলো, মাস্ক পরিধান শতভাগ কার্যকর করা। কিন্তু এসব নিদের্শনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে যাচ্ছে ক্রেতা-বিক্রেতারা।

Yakub Group

নগরের অন্যতম গরুর বাজার সাগরিকায় দেখা যায়, হাটের ভেতর হাজার হাজার মানুষ। চলছে বিক্রেতার হাঁকডাক ও ক্রেতার দর কষাকষি। কিন্তু সবখানেই উপেক্ষিত ছিল স্বাস্থ্যবিধি। ক্রেতা-বিক্রেতা কারো মুখে নেই মাস্ক। হাটের প্রবেশ পথে ছিল না হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা।

আরও পড়ুন: বঙ্গোপসাগরে ইয়াবার বিশাল চালান নিয়ে ধরা খাওয়া ৬ রোহিঙ্গার জেল

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, এসএমএস দেওয়ার পরও তৃতীয় (বুস্টার) ডোজের টিকা গ্রহীতার সাড়া কম মিলছে। চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত করোনার টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৭২ লাখ ২৯ হাজার ১৯৬ জন। দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৬৭ লাখ ৮৮ হাজার জন। তবে বুস্টার ডোজ নিয়েছেন কেবল ১৭ লাখ ৪৩ হাজার ১৭৬ জন। দ্বিতীয় ডোজের সঙ্গে বুস্টার ডোজ গ্রহীতার তুলনার হার খুবই কম। প্রায় অর্ধকোটি মানুষ এখনও বুস্টার ডোজ নেয়নি।

জানতে চাইলে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন মো. ইলিয়াস চৌধুরী আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, পশুর হাট চালুর আগেই শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মানার নিদের্শনা দেওয়া হয়েছে। মুখে মাস্ক ও সামাজিক দূরত্বের ব্যাপারে কঠোর নিদের্শনা থাকলেও স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না এমন অভিযোগ শুনেছি। জেলা প্রশাসনকে এসব বিষয়ে দ্রুত জানানো হবে। যারা স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বাজার পরিচালনা করছে তাদের জরিমানার আওতায় আনা হবে।

যোগাযোগ করা হলে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে প্রতিদিন আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। পশুর হাটের ইজারাদার ও ক্রেতা-বিক্রেতাদের স্বাস্থবিধি মেনে চলার ব্যাপারে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

আরএএন/এসআর

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm