চট্টগ্রামে সিত্রাংয়ে ড্রেজারডুবি—আরও ৩ লাশ উদ্ধার, রইল বাকি ৪

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে সাগরে ড্রেজার ডুবে নিখোঁজ ৮ শ্রমিকের মধ্যে আরো তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (২৬ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিনহাজুর রহমান।

তিনি বলেন, উদ্ধারকারী ডুবুরি দল সাগরে ডুুবে যাওয়া ড্রেজার থেকে বুধবার সকালে আরো তিনটি লাশ উদ্ধার করেছে। তবে তাদের শরীর ফুলে গেছে। এ নিয়ে ৪ জনের লাশ উদ্ধার হলো।

উদ্ধার হওয়া লাশগুলো হলো- পটুয়াখালী সদরের সদর উপজেলার চর জৈনকাঠি গ্রামের আনিচ মোল্লার ছেলে ইমাম মোল্লা, আ. হক মোল্লার ছেলে মাহমুদ মোল্লা ও সেকান্দার বারির ছেলে জাহিদ বারি। এর আগে মঙ্গলবার রাতে উদ্ধার হওয়া লাশটি ছিল একই এলাকার ফকির বাড়ির ফকির রহমানের ছেলে আল আমিন ফকিরের (২৯)।

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামে ৮ যুবকের খোঁজ মিলছে না, কোস্টগার্ডের বিরুদ্ধে অভিযোগের তীর ওসির

মিরসরাই ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মকর্তা ইমাম হোসেন পাটোয়ারি আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, মঙ্গলবার রাতে একজনের লাশ উদ্ধারের পর রাত ১২টায় উদ্ধারসংশ্লিষ্ট সকলের মতামতের ভিত্তিতে উদ্ধার অভিযান স্থগিত করা হয়। পুনরায় আজ সকাল ৯টা থেকে উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। ইতমধ্যে আরো তিন শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। অন্যদেরও উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

এর আগে নিখোঁজ আট শ্রমিক হলেন- সদর উপজেলার চর জৈনকাঠি গ্রামের মোল্লা বাড়ির আ. রহমানের ছেলে মো. তারেক মোল্লা, আনিচ মোল্লার দুই ছেলে শাহীন মোল্লা ও ইমাম মোল্লা, আ. হক মোল্লার ছেলে মাহমুদ মোল্লা, ইউসুফ হাওলাদারের ছেলে মো. বসার হাওলাদার, নুরু সর্দারের ছেলে আলম সর্দার, সেকান্দার বারির ছেলে জাহিদ বারি এবং ফকির বাড়ির রহমান ফকিরের ছেলে আল-আমিন ফকির।

গত সোমবার (২৪ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার সাহেরখালি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ৩নং চায়না হারবার এলাকায় বেড়িবাঁধ থেকে আনুমানিক ৫০০ ফুট দূরত্বে অবস্থান করছিল ড্রেজারটি। ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে ড্রেজারটি ডুবে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এএ/আলোকিত চট্টগ্রাম

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!