চট্টগ্রামে শীতের সঙ্গে বাড়ছে করোনার তীব্রতা, ওমিক্রন বিস্তারের শঙ্কা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

শীতের তীব্রতার সঙ্গে চট্টগ্রামে বাড়ছে করোনার তীব্রতা। চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। অথচ আগের দিন আক্রান্ত হয়েছিলেন মাত্র ৪ জন। এদিকে সামনে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন বিস্তারের শঙ্কা ব্যক্ত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

সংস্থাটির প্রধান তেদ্রোস আধানম গ্যাব্রিয়েসুস শঙ্কাপ্রকাশ করেন, করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন গোটা বিশ্বেই অপ্রত্যাশিত গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে। ইতোমধ্যে ৭৭টি দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণের তথ্য পাওয়া গেলেও এর চেয়েও বেশি দেশে তা ছড়িয়েছে।

এ আশঙ্কার মধ্যেই চট্টগ্রামে করোনার প্রকোপ বাড়ছে। সমানতালে বিস্তার হচ্ছে নগর ও গ্রামে। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে আক্রান্ত ১৪ জনের মধ্যে ৮ জন নগরের এবং ৬ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। তবে এ সময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কারো মৃত্যু হয়নি। সোমবার (২০ ডিসেম্বর) সকালে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামে করোনা : গ্রামে কমলেও নগরে কমছে না

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের ১১ ল্যাবে ১ হাজার ৬৬০ নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি ল্যাবে ২৬৯ নমুনা পরীক্ষায় ২ জন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৩৪ নমুনা পরীক্ষায় ৩ জন এবং ২৪ অ্যান্টিজেন টেস্টে ৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

এছাড়া ইমপেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ৩৩৮ নমুনা পরীক্ষায় ১ জন, শেভরন হাসপাতাল ল্যাবে ৪১৮ নমুনা পরীক্ষায় ২ জন, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ৪১৯ নমুনা পরীক্ষায় ১ জন এবং ইপিক হেলথ কেয়ার ল্যাবে ২১ নমুনা পরীক্ষায় ২ জনের শরীরে করোনার জীবাণু শনাক্ত হয়।

পরীক্ষার তুলনায় সংক্রমণের হার শূন্য দশমিক ৮৪ শতাংশ। এর মধ্যদিয়ে চট্টগ্রামে মোট শনাক্তের সংখ্যা হলো ১ লাখ ২ হাজার ৫১২ জন। মৃতের সংখ্যা আগের মতোই, ১ হাজার ৩৩২ জন।

এসি
1 মন্তব্য
  1. সোহেল রানা বলেছেন

    মা ও শিশু হাসপাতালে গোলা কাটা হয়,,,,,,চিকিত্সা সেবা ভালো না,, ও সহকারী চিকিৎসক ও নার্স এদের বেবহার ভালো না আমি নিজেও ভুক্ত ভোগী

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm