চট্টগ্রামে রেলওয়ে সমবায় সমিতির নির্বাচন—চাপে পড়ে সরে দাঁড়াল ২ প্রার্থী

বাংলাদেশ রেলওয়ে ঋণদান সমবায় সমিতির (সিসিএস) নির্বাচনী প্রচারণায় সরগরম রেল অঙ্গন। ভোটের আর মাত্র দুদিন বাকি। এ অবস্থায় ভোটের হিসাব-নিকাশে ব্যস্ত প্রার্থীরা।

এদিকে এবারের নির্বাচনে প্রার্থীকে জোর করে বসিয়ে দেওয়ারও অভিযোগ উঠেছে। ইতোমধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ৩ জন। এছাড়া নির্বাচনে অনিয়ম ও বলপ্রয়োগের শঙ্কায় ভোটাররা নির্বাচন কমিশনারের কাছে চিঠি দিয়েছেন। নির্বাচনে পরিচালক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৫ জন। তাঁদের মধ্য থেকে ৮ জন নির্বাচিত হবেন।

আরও পড়ুন: ‘ক্ষমতার জোর’ দেখালেন রেলওয়ে ট্রেনিং একাডেমির রেক্টর, হাইকোর্টকেও বৃদ্ধাঙ্গুলি

নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই বাড়ছে উত্তাপ। বেড়েছে প্রার্থীদের ব্যস্ততা। প্রার্থীরা ভোটারের দ্বারে দ্বারে গিয়ে নানা ধরনের সুযোগ-সুবিধার কথা বলে তাদের কাছে টানার চেষ্টা করছেন। তবে এবারের নির্বাচনে কেন্দ্র দখল ও অনিয়মের শঙ্কা করছেন কেউ কেউ।

এদিকে নির্বাচনের আগে কাউসার হোসেন ও মনির আহমেদ নামের দুই প্রার্থীকে চাপ প্রয়োগ করে মনোনয়ন প্রত্যাহারের অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি নিয়ে রেলওয়ে অঙ্গনে চলছে নানা আলোচনা। তবে এ ব্যাপারে কেউ মুখ খুলতে রাজি নন।

Yakub Group

মনোনয়ন প্রত্যাহার করা কাউসার হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আমি যেহেতু মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছি তাই বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চাই না।

কারো চাপে মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন কি-না এমন প্রশ্নের উত্তরে বলেন, সব কথা বলা যায় না।

এদিকে এবারের নির্বাচনে প্রার্থীদের অনেকে বলপ্রয়োগ ও ভোটকেন্দ্র দখলের আশাঙ্কা করছেন। বিশেষত হালিশহর ও লাকসাম কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন শফিুকল আলম স্বপন নামের এক প্রার্থী। তিনি অভিযোগে আসন্ন সিসিএস নির্বাচনে সুষ্ঠ ভোটগ্রহণে পরিবশে বজায় রাখার জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের দাবি জানান।

যোগাযোগ করা হলে শফিকুল ইসলাম স্বপন বলেন, আমি নির্বাচনে বলপ্রয়োগ ও কেন্দ্র দখলের আশঙ্কা করছি। বিশেষত হালিশহর ও লাকসাম কেন্দ্র দুটি ঝুঁকিপূর্ণ। আমি এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছি। আমরা চাই নির্বাচন সুষ্ঠ হোক।

আরও পড়ুন: রেলওয়েমেন্স স্টোরস নির্বাচন—দিনভর নাটকীয়তার পর্দা নামল শেষ রাতে

এদিকে নির্বাচনে ৩ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেনে বলে জানা গেছে। তবে তাদের ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যায়নি।

সিসিএস সূত্রে জানা গেছে, আসন্ন ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল ঋণদান সমবায় সমিতির নির্বাচনে ৫টি এলাকা থেকে পরিচালক পদে মোট ১৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাঁরা হলেন— আবদুল্লাহ আল আসিফ, শান্তনু দাস, মো. অলি উল্লাহ, মো. কামরুল হাসান, মো. সালাম মিয়া, মো. আবদুল্লাহ নোমান, সৈয়দ মো. আবদুল্লাহ, কাজী মো. জাহাঙ্গীর, মো. আবদুল আজিজ, মো. জহিরুল ইসলাম, মো. শফিকুল আলম, মো. শাহিনুর রহমান, মো. সেলিম, মো. তাজুল ইসলাম ও মো. দেলওয়ার হোসেন মিল্কি।

এবার সিআরবি, পাহাড়তলী, হালিশহর আরটিএ ও লাকসাম কেন্দ্রে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই পাঁচ কেন্দ্রের ২৩টি বুথে ভোটাররা ভোট দিবেন।

আলোকিত চট্টগ্রাম

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm