চট্টগ্রামে বর্ণিল আয়োজনে নবীনদের বরণ করল পোর্ট সিটি ইউনিভার্সিটি

পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, আমি চট্টগ্রামে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের নিয়ে বসেছিলাম। চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা নিরসন ও নদীভাঙন রোধে যেসব প্রকল্প চলমান সেগুলো দ্রুত শেষ করার জন্য বলেছি। ১৭টি প্রকল্প আছে৷ ইতোমধ্যে ৭টি শেষ এবং ৯টি প্রকল্প শেষের পথে। মোট ৮ হাজার ২৯ কোটি টাকার প্রকল্প।

শনিবার (২১ নভেম্বর) পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অডিটোরিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ‘স্প্রিং-২০২৩’ সেমিস্টারে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ উপলক্ষে এ আয়োজন করা হয়।

একেএম এনামুল হক শামীম বলেন, উপকূলীয় অঞ্চল নদীভাঙন থেকে রক্ষার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। ১৪ বছর আগে সাড়ে ৯ হাজার হেক্টর এলাকা নদীভাঙনের কবলে পড়েছিল। এখন তা কমে ৩ হাজার হেক্টরে এসেছে। অর্থাৎ প্রায় এক তৃতীয়াংশ ভাঙন কমেছে।

পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নূরল আনোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে নবীন শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের। তিনি বলেন, উন্নত দেশ হিসেবে এগিয়ে যেতে হলে শিক্ষার্থীদের কর্মমুখী শিক্ষায় গুরুত্ব দিতে হবে। জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণে শিক্ষার্থীরাই আগামীর ভবিষ্যৎ।

Yakub Group

নবীন বরণে ১০০ শিক্ষার্থীকে বেগম আশ্রাফুন্নেসা ফাউন্ডেশন থেকে বিভিন্ন কোটায় বৃত্তি দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. ওবায়দুর রহমান

বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ও একাডেমিক এডভাইজার অধ্যাপক ড. এম মজিবুর রহমান, মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন, ব্যবসা প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. ফসিউল আলম।

এদিকে সভাপতির বক্তব্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নূরল আনোয়ার বলেন, আমি শুধু সার্টিফিকেট অর্জনকেই একমাত্র শিক্ষা মনে করি না। এর মধ্যে থাকবে সুষ্ঠু আচার-ব্যবহার, নীতি-নৈতিকতা, মানবিকতা, বিবেকের তাড়না ও বিচারিক শক্তি। তবেই একজন শিক্ষার্থীর শিক্ষা দেশ ও জাতির কল্যাণে আসবে।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন উপদেষ্টা প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়া, ট্রাস্টি বোর্ড সদস্য মো. আলী আজম স্বপন, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ইঞ্জি. মাফজল আহমেদ এবং পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. সেলিম হোসেন।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন।

এআইটি/এসআই

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm