চট্টগ্রামে ‘ডাকাত ডাকাত’ বলে তিন র‌্যাবকে ‘গণপিটুনি’, হেলিকপ্টারে নিল সিএমএইচে

মিরসরাইয়ের বারইয়ারহাট পৌরবাজারে ডাকাত সন্দেহে দুই র‌্যাব সদস্যসহ তিনজনকে গণপিটুনিতে রক্তাক্ত করেছে স্থানীয়রা। গুরুতর আহত দুই র‌্যাব সদস্যকে প্রথমে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরে আশঙ্কাজনক দুজনকে হেলিকপ্টার করে পাঠানো হয় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচে)। আহত অন্যজন র‌্যাবের সোর্স।

আরও পড়ুন: ডাকাতির আগেই পুলিশের হানা, পালাল ৪ ডাকাত, ধরা খেল ৩

বুধবার (২৫ মে) সন্ধ্যা ৭টার সময় র‌্যাব-৭ ফেনী ক্যাম্পের সদস্যরা বারইয়ারহাট পৌরবাজারের ফুটওভার ব্রিজের নিচে অভিযানের সময় এ ঘটনা ঘটে। এসময় ভাঙচুর করা হয় র‌্যাব সদস্যদের প্রাইভেটকার।

Yakub Group

আহত র‌্যাব সদস্যরা হলেন- মো. শামীম কাউসার (২৯) ও মোখলেস (৩৩)। আহত পারভেজ (২৮) র‌্যাবের সোর্স।

এদিকে আহত র‌্যাব সদস্যদের বারইয়ারহাট জেনারেল হাসপাতাল ও বারইয়ারহাট মেডিকেল সেন্টারে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ২৫০ শয্যার ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এছাড়া মো. শামীম কাউসার ও মোখলেসের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় হেলিকপ্টারে করে রাতে সিএমএইচ পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, আজ (বুধবার) সন্ধ্যায় বারইয়ারহাট পৌরবাজারের উত্তর পাশে একটি ট্রাককে পেছনে থাকা র‌্যাব সদস্যদের বহনকারী প্রাইভেটককার দাঁড়ানোর জন্য সিগন্যাল দিলে ট্রাকটি না থামিয়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় ট্রাকটি বারইয়ারহাট পৌরবাজারের ফুট ওভাব্রিজ বরাবর এসে থামানোর পর ড্রাইভার ডাকাত ডাকাত বলে চিৎকার শুরু করে।

পরে স্থানীয়রা প্রাইভেটকারটি ঘিরে সিভিলে থাকা র‌্যাব সদস্যদের ধরে গণধোলাই দেয়। এসময় খবর পেয়ে তাদের উদ্ধার করতে ফেনী ক্যাম্প থেকে র‌্যাবের আরো কিছু সদস্য ঘটনাস্থলে আসে। এরপর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনাতে র‌্যাব সদস্যরা কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে।

পরে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা আহত সদস্যদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত বারইয়ারহাট পৌর বাজারে র‌্যাব ও পুলিশ সদস্য মোতায়েন ছিল।

জানতে চাইলে বারইয়ারহাট জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. আরিফ বলেন, আজ (বুধবার) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার সময় আহত অবস্থায় শামীম কাউসার নামের একজনকে হাসপাতালে আনা হয়। তার মাথার পেছনে মারাত্মক জখম ছিল। এছাড়া শরীরের বিভিন্ন অংশেও আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

বারইয়ারহাট মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক শান্তনু রাজ চৌধুরী বলেন, আজ (বুধবার) সন্ধ্যায় মোখলেস ও পারভেজ নামের দুই র‌্যাব সদস্যকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। এদের মধ্যে মোখলেস অজ্ঞান অবস্থায় ছিলেন।

যোগাযোগ করা হলে জোরারগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নূর হোসেন মামুন বলেন,  সন্ধ্যায় বারইয়ারহাট পৌর বাজারে অভিযানের সময় সিভিলে থাকা র‌্যাব সদস্যদের ওপর ডাকাত সন্দেহে হামলার ঘটনা ঘটে। ঘটনা শুনে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং আহত র‌্যাব সদস্যদের হাসপাতালে ভর্তি করে।

পরে র‌্যাবের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তাদের ফেনী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহতদের মধ্যে ১ জন সেনাবাহিনীর সদস্য, ১ জন আনসার সদস্য বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন: প্রতিরোধের মুখে গভীর রাতে অটোরিকশা ফেলে পালাল ডাকাতের দল, ভিন্ন সুর পুলিশের

র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) নুরুল আবছার বলেন, বারইয়ারহাটে অভিযান পরিচালনার সময় কিছু দুর্বৃত্ত র‌্যাব সদস্যদের ওপর হামলা করে। এতে র‌্যাবের ৩ সদস্য গুরুতর আহত হয়।

তিনি আরও বলেন, আহতদের ফেনী সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। রাত ৯টার দিকে আহত মো. শামীম কাউসার ও মোখলেসকে ঢাকার সিএমএইচ হাসাপাতালে পাঠানো হয়। পারভেজকে ২৫০ শয্যার ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আজিজ/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm