চট্টগ্রামে করোনা: মৃত্যুশূন্য দিনে লাফিয়ে বাড়ল শনাক্ত

চট্টগ্রামে মৃত্যুশূন্য দিনে আবারও লাফিয়ে বাড়ল শনাক্ত। নতুন বছরের শুরু থেকেই শনাক্তের হারে বড় ধরনের ঊর্ধ্বগতি দেখছে চট্টগ্রাম।

গত ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে আবারও সহস্রাধিক করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। তবে এর মধ্যেও টানা দুদিন মৃত্যুশূন্য দিন পার করল চট্টগ্রাম।

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ১১৫ জন। এর মধ্যে নগরের ৭৯৪ জন এবং ৩২১ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। শনাক্তের হার ২৭.৪২ শতাংশ।

আরও পড়ুন: বাদুড় থেকে ‘করোনা’—মারাত্মক হতে পারে নতুন ধরন ‘নিওকোভ’

আগের দিন (শনিবার) মৃত্যুহীন দিনে শনাক্তের হার ছিল ২৭.৭৮ শতাংশ।

চট্টগ্রামে গত মঙ্গলবার ২ জন, বুধবার ৩ জন, বৃহস্পতিবার ২ জন এবং শুক্রবার ৪ করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছিল। তবে শনিবার ও রোববার টানা দুদিন ‘মৃত্যুশূন্য’।

রোববার (৩০ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ১৪ ল্যাবে ৪ হাজার ৬৭টি নমুনা পরীক্ষা হয়। এরমধ্যে বিআইটিআইডিতে ৭৯৩ নমুনায় ২৪৮ জন, শেভরনে ৫৬২ নমুনায় ১৩২ জন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ২০৩ নমুনায় ৮৫ জন, মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ২০০ নমুনায় ২২ জন, আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে ২৩৬ নমুনায় ৪২ জন, আরটিআরএলে ৩৪ নমুনায় ১৭ জন, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে ২১১ নমুনায় ১২১ জন, মেট্রোপলিটন হাসপাতালে ১৫৪ নমুনায় ৬১ জন, ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে ৮৪৫ নমুনায় ১৮২ জন, ল্যাবএইডে ৫ নমুনায় ২ জন এবং শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ৪৮১ নমুনায় ৫০ জনের দেহে করোনার জীবাণু পাওয়া গেছে।

এদিন ৩৪৩ অ্যান্টজেন টেস্টে ১৫৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

এছাড়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ, ইপিক হেলথ কেয়ার, এশিয়ান স্পেশালাইজড হাসপাতালে হয়নি করোনার নমুনা পরীক্ষা।

উপজেলার মধ্যে হাটহাজারী ৬৮ জন, ফটিকছড়ি ২২ জন, রাঙ্গুনিয়া ৪২ জন, রাউজান ৭১ জন, চন্দনাইশ ৫ জন, বাঁশখালী ৬ জন, সাতকানিয়া ৬ জন, পটিয়া ৪০ জন, আনোয়ারা ৫ জন, বোয়ালখালী ১৮ জন, মিরসরাই ২২ জন, সন্দ্বীপ ৪ জন, লোহাগাড়া ৬ জন এবং সীতাকুণ্ডে ৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

আরও পড়ুন : করোনা : চট্টগ্রামে ৪ দিন পর ‘সুখবর’ 

তবে কর্ণফুলী উপজেলায় কোনো করোনো রোগী শনাক্ত হয়নি।

নগরে ৮৬ হাজার ৮৭৯ জন এবং উপজেলায় ৩২ হাজার ২৪৮ জনসহ মোট শনাক্ত ১ লাখ ১৯ হাজার ১২৭ জন।

চট্টগ্রামে মোট মৃত্যু ১ হাজার ৩৫৪। যার ৭৩০ জন নগর এবং ৬২৪ জন উপজেলার বাসিন্দা।

আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm