চট্টগ্রামে করোনায় ‘দুর্দান্ত’ দিন

করোনায় দুর্দান্ত এক দিন কাটিয়েছে চট্টগ্রাম। যে দিনে কোথাও ছিল না কোনো আহাজারি। আবার শনাক্তও হয়েছে কম।

গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৮১৩ নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ২১ জনের। যার মধ্যে ১২ জন নগরের এবং ৯ জন উপজেলার। শনাক্তের হার ১.১৬ শতাংশ।

আগের দুদিন যথাক্রমে শনাক্ত হয়েছিলেন ৩৬ ও ৩১ জন। ওই দুদিন একজন করে করোনা রোগীর মৃত্যুও হয়েছিল। শনাক্তের হার ছিল যথাক্রমে ২.১৩ ও ১.৪৮ শতাংশ।

শনিবার (৯ অক্টোবর) সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে ৯টি ল্যাবে করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে শেভরনে ৫৬৪ নমুনা পরীক্ষায় কারো শরীরের করোনা জীবাণু পাওয়া যায়নি। এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেলে ২টি ও ল্যাব এইডে ৪টি নমুনা পরীক্ষায়ও পাওয়া যায়নি করোনার আক্রান্ত ব্যক্তি।

এদিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ এবং আরটিআরএলে করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়নি। হয়নি এন্টিজেন টেস্টও।

আরও পড়ুন : চট্টগ্রামে করোনা : শনাক্তে ধারাবাহিকতা, মৃত্যুতে নেই অগ্রগতি

Thai Food

গত ২৪ ঘণ্টায় বিআইটিআইডি ল্যাবে ৬৪৫ নমুনা পরীক্ষায় ৫ জন, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৫৬ নমুনায় ৯ জন, ইম্পেরিয়ালে ২৬৬ নমুনায় ১ জন, আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে ১৪০ নমুনায় ২ জন, মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ৮ নমুনায় ১ জন এবং ইপিক হেলথ কেয়ার ল্যাবে ২৮ নমুনা পরীক্ষায় ৩ জনের শরীরের করোনার উপস্থিতি পাওয়া যায়।

এদিকে চট্টগ্রামের বাঁশখালী, আনোয়ারা, চন্দনাইশ, পটিয়া, রাঙ্গুনিয়া, রাউজান, ফটিকছড়ি, মিরসরাই ও সন্দ্বীপ উপজেলায় কোনো করোনা রোগী পাওয়া যায়নি।

তবে হাটহাজারীতে ৪ জন, সীতাকুণ্ডে ২ জন, লোহাগাড়ায় ১ জন, সাতকানিয়া ১ জন ও বোয়ালখালী ১ জন করোনা রোগী পাওয়া গেছে।

জেলায় এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত ১ লাখ ১ হাজার ৯৯২ জন। যার মধ্যে ৭৩ হাজার ৮২০ জন নগরের এবং ২৮ হাজার ১৭২ জন উপজেলার।

সেই সঙ্গে মোট মৃত্যু ১ হাজার ৩১০ জন। যার মধ্যে নগরের ৭২০ জন এবং উপজেলার ৫৯০ জন।

ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm