গেটম্যান না রেখেই চালু—তূর্ণার ধাক্কায় সীতাকুণ্ডে দুমড়েমুচড়ে গেল ট্যাংক লরি

সীতাকুণ্ডে ট্রেন ও ট্যাংক লরির সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হয়ে বন্ধ হয়ে যায় ঢাকা-চট্টগ্রাম রেল যোগাযোগ। এ ঘটনায় ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) রাত আনুমানিক পৌনে ১২টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে যাওয়া ঢাকামুখী তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেসের সঙ্গে বাড়বকুণ্ডের এসকেএম জুটমিল সংলগ্ন রেলক্রসিংয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এদিকে মেরামতের পর আজ (বুধবার) ভোর থেকে পুনরায় ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

আরও পড়ুন: বন্দরে বেপরোয়া লরির ধাক্কা—মুহূর্তেই লাশ ছাত্রলীগ নেতা

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, দুর্ঘটনায় ট্যাংক লরিটি দুমড়েমুচড়ে যায়। তবে চালক আগেই গাড়ি থেকে নেমে পড়ে। দুর্ঘটনার পর উভয় লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এসময় কুমিরায় আটকা পড়ে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে যাওয়া উদয়ন এক্সপ্রেস।

স্থানীয়রা জানায়, এ রেলক্রসিংয়ে আগেও বিভিন্ন সময় কমপক্ষে ৫টি দুর্ঘটনা ঘটেছে । এরপর ক্রসিংয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছিল। কিন্তু পুনরায় গেটম্যান নিয়োগ না করে আবারও চালু করার কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে।

লোকোমাস্টার মুজিবুর রহমান ভূইয়া জানান, নতুন ইঞ্জিন লাগানোর পর ভোর ৪টার দিকে তূর্ণা নিশীথা পুনরায় গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।

এ বিষয়ে সীতাকুণ্ড স্টেশন মাস্টার মোতাহার সিদ্দিকী আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ঘটনার পর ভোর রাতে আপলাইন চালু করলে এক লাইনে ট্রেন চলাচল আরম্ভ হয়।

আরও পড়ুন: কলেজছাত্রী নিহত—লরির ধাক্কায়

চট্টগ্রাম জিআরপি থানার ইনচার্জ মো. নাজিম উদ্দিন বলেন, দুর্ঘটনার পর ট্রেন চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ ছিল। এরপর আজ (বুধবার) সকাল থেকে সব ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

চট্টগ্রাম পূর্বাঞ্চল রেলওয়ের এটিও মো. মনিরুজ্জামান জানান, কেন এ ঘটনা ঘটেছে তা খতিয়ে দেখতে চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সালাউদ্দিন/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm