গলায় ছুরি ধরে ধর্ষণ করা হলো স্কুলছাত্রীকে

লামায় নবম শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রীকে গলায় ছুরি ধরে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ করেছে ভিকটিম ও তার পরিবার।

বুধবার (১৭ নভেম্বর) দুপুর দেড়টায় লামা হাসপাতালে ধর্ষিতা মেয়েকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসেন মা।

অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম মো. সাইফুল। তিনি লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের হারগাজা এলাকার সেকান্দর আলীর ছেলে।

আরও পড়ুন: চতুর্থ শ্রেণীর শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা, ধানক্ষেত থেকে গ্রেপ্তার যুবক

Thai Food

লামা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত সহকারী মেডিকেল অফিসার ডা. রায়হান জান্নাত বিলকিস সুলতানা বলেন, ভিকটিমের শরীরে ধর্ষণের আলামত রয়েছে। তাকে বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

ভিকটিমের পরিবার সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাড়িতে শুধু ভিকটিম ও তার ছোট বোন ছিল। এই সুযোগে অভিযুক্ত সাইফুল এসে তার গলায় ছুরি ধরে ভয়-ভীতি দেখিয়ে তাকে বাড়ির পাশের পাহাড়ে নিয়ে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

যোগাযোগ করা হলে লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, হাসপাতালের মাধ্যমে ঘটনাটি জানতে পেরে ভিকটিম ও পরিবারকে থানায় আসতে বলা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

ইলিয়াছ/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm