গলায় কাঁটা—‘আইবাসে’ থমকে গেছে সহস্র রেলকর্মীর ঈদানন্দ

বেতন-ভাতা পরিশোধ সহজ ও দ্রুত করতে অত্যাধুনিক আইবাস প্লাস প্লাস সিস্টেম চালু করে রেলওয়ে। কিন্তু এই সিস্টেমই এখন গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে পূর্বাঞ্চলের রেলকর্মীদের।

ঈদের চাঁদ দেখা গেলেও আনন্দ নেই পূর্বাঞ্চলের পাঁচ হাজার রেলকর্মীর। কারণ এদের কেউ বেতন পেয়েছে, তো কেউ বোনাস পাননি। এদের মধ্যে আবার এমনও অনেক রেলকর্মী আছেন যারা বেতন-বোনাস কোনোটিই পাননি।

বঞ্চিত কর্মীদের অভিযোগ, রেলওয়ের হিসাব বিভাগের কিছু কর্মচারী ও বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তাদের গাফেলতির কারণেই এমনটি হয়েছে। তাদের কারণেই এবার পরিবার নিয়ে আনন্দহীন ঈদ উদ্‌যাপন করতে হবে।

বুধবার (১২ মে) রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রায় পাঁচ হাজার রেলকর্মীকে আইবাস সিস্টেমে বেতন-বোনাস দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বাংলাদেশ ব্যাংক টাকা ছাড় না দেওয়ায় শুরু হয় সমস্যা। সারাদিন অপেক্ষা করে শূন্য হাতে ফিরতে হয়েছে তাদের।

Yakub Group

রেলওয়ে সূত্র জানায়, পূর্বাঞ্চল রেলের প্রায় পাঁচ হাজার শ্রমিকের বেতন গত ১ ও ৮ মে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণ দেখিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক মতিঝিল থেকে বিভিন্ন দপ্তরে রেল শ্রমিকদের বেতনের অর্থ ছাড় দেয়নি।

এদিকে বৃহস্পতিবার (১৩ মে) চাঁদ দেখা গেলেও ঈদের খুশি ছিল না বেতন না পাওয়া সহস্র রেলকর্মীর। বেতনবঞ্চিত রেলকর্মী আব্দুল হক (৬০) আলোকিত প্রতিবেদককে বলেন, ৮ জনের সংসারে আমিই একমাত্র উপার্জনকারী। পরিবারের জন্য কিছুই কিনতে পারিনি। কীভাবে যে ঈদ কাটাব কিছুই বুঝতে পারছি না।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে পাহাড়তলী অর্থ ও হিসাব শাখার ডেপুটি ফিন্যান্সিয়াল অ্যাডভাইজার মো. শাহজাহান বলেন, আমাদের কোনো গাফেলতি নেই, আপনারা খোঁজ নিয়ে দেখেন।

একই প্রসঙ্গে অর্থ ও হিসাব অধিকর্তা (পূর্ব) কামরুন্নাহার বলেন, আমি নিজে কথা বলেছি বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে। চিঠিও দিয়েছি। এখন অপেক্ষা করা ছাড়া তো আর কিছুই করার নেই।

সূত্র জানায়, আইবাস প্লাস প্লাস সিস্টেমে এই প্রথম বাংলাদেশ ব্যাংক মতিঝিল শাখার মাধ্যমে স্ব স্ব দপ্তরের কর্মকর্তাদের অধীনে কর্মচারীদের বেতন-ভাতার টাকা পৌঁছে দেওয়ার কাজ শুরু হয়। ইএফটির কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত এভাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে চেকের অর্থ ছাড় দেওয়া হবে বলে সূত্র জানায়।

আলোকিত চট্টগ্রাম

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm