খাবারের খোঁজ—লোকালয়ে এলো ক্ষুধার্ত সাপ অজগর

কর্ণফুলী উপজেলায় দিনে-রাতে হাতির বিচরণ নতুন কিছু নয়। মূলত আশপাশের পাহাড়গুলো ভূমিদস্যুরা সাবাড় করার ফলে এমনটা হচ্ছে। এবার হাতির সঙ্গে যোগ হয়েছে অজগরের নাম।

জঙ্গল ছেড়ে খাবারের খোঁজে লোকালয়ে এসে পড়েছে একটি অজগর। বৃহস্পতিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিকালে উপজেলার জুলধা ইউনিয়নের ডাঙারচর ৩ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় সাপটি দেখা যায়।

ওই এলাকায় বসুন্ধরা গ্রুপের একটি খামার থেকে সাপটি উদ্ধার করে স্থানীয় জনতা। অজগরটির দৈর্ঘ্য প্রায় ১৩ ফুট এবং ওজন ২৫ কেজির মতো। খবর পেয়ে এলাকার লোকজন সাপটি দেখতে ভিড় জমান।

আরও পড়ুন: সাপের গ্রাম সারোয়াতলী

Yakub Group

স্থানীয় বাসিন্দা মু. গিয়াস উদ্দিন বলেন, জুলধা ইউনিয়নের ডাঙ্গারচর ৩ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার পরিত্যক্ত খামারটি বসুন্ধরা গ্রুপের কাছে বিক্রি করা হয়। সেখানে তারা কারখানা করার জন্য গতকাল থেকে পরিষ্কারকাজ শুরু করেন। এ সময় পাশের তালগাছে অজগরটি ফোঁস ফোঁস শব্দ করতে থাকে। সাপটির দৈর্ঘ্য প্রায় ১৩ ফুট এবং ওজন প্রায় ২৫ কেজি।

তিনি আরও বলেন, সন্ধ্যায় সাপটিকে ধরে বস্তাবন্দি করে রাখা হয়। পরে আমরা বন বিভাগের বন্য প্রাণী উদ্ধারকর্মীদের এটি হস্তান্তর করি।

আরও পড়ুন: গহীন বনের ‘মলুরাজ’ অজগর লোকালয়ে

বন বিভাগের বন্য প্রাণী উদ্ধারকর্মী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হাছান মাহমুদ আরাফাত আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, দেখে মনে হচ্ছে পাহাড়ি আবাসস্থল নষ্ট হয়ে যাওয়ায় এবং খ্যাদ্যের অভাবে জঙ্গল থেকে অজগরটি লোকালয়ে চলে এসেছে। এ সাপ মানুষের তেমন ক্ষতি করে না। সাপটি উদ্ধার করে সন্ধ্যায় কেইপিজেডের পাহাড়ে অবমুক্ত করেছি। উদ্ধারকাজে শিক্ষার্থী জুলকার নাঈন, মেহেদি হাসান, আসিফুর রহমান সহযোগিতা করেছেন।

কোথাও এ রকমের সাপসহ যে কোনো বন্যপ্রাণী উদ্ধার করা হলে তাদের অবহিত করার জন্য আহ্বান জানান তিনি।

ইমরান/ডিসি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm