ঘরের সামনে থেকে একের পর এক কার্তুজ উদ্ধার—সাংবাদিকের সঙ্গে শত্রুতা কার?

বোয়ালখালীতে সাংবাদিকের বাড়ির দরজা ও উঠানে পাওয়া যাচ্ছে একের পর এক কার্তুজ। গত ১১ নভেম্বর থেকে সর্বশেষ ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৯ রাউণ্ড কার্তুজ পাওয়া গেছে। পরে পুলিশ এসে কার্তুজগুলো উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

উপজেলার পশ্চিম খরণদ্বীপের বাসিন্দা সাংবাদিক সেকান্দর আলম বাবরের ঘরের দরজা ও উঠান থেকে এসব কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

এদিকে এ ঘটনায় বোয়ালখালী থানায় পৃথক দুটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: এলজি—কার্তুজ নিয়ে ধরা খেল যুবক

জানতে চাইলে সেকান্দর আলম বাবর আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, বসতবাড়ির উঠানে ও দুয়ারে কে বা কারা এসব কার্তুজ রেখে গেছেন জানি না। এ বিষয়ে থানাকে অবহিত করার পর পুলিশ এসে কার্তুজগুলো উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় থানায় গত ১৯ নভেম্বর প্রথম জিডি (নম্বর-৮৫৩) করি।। এরপর ১৪ ডিসেম্বর দ্বিতীয় জিডি (নম্বর-৬৬৭) করি।

জানা যায়, ১১ নভেম্বর ১টি, ১৮ নভেম্বর ১টি, ১৯ নভেম্বর ৫টি এবং ১৪ ডিসেম্বর ২টিসহ চার দফায় মোট ৯টি কার্তুজ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় পরিবারের সদস্যদের নিয়ে চরম আতঙ্ক ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন সাংবাদিক সেকান্দর আলম বাবর।

আরও পড়ুন: গুলি-কার্তুজসহ ২ অস্ত্র কারবারি র‌্যাবের জালে

যোগাযোগ করা হলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বোয়ালখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.আবদুল করিম আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, কয়েক দফায় মোট ৯টি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এসব কার্তুজ অচল। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, সাংবাদিক সেকান্দর আলম বাবর উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক, বোয়ালখালী প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক পূর্বকোণের বোয়ালখালী প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এছাড়া তিনি সৈয়দপুর এ নূর ব্লসম স্কুলের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করছেন ।

আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm