কাগজপত্র-নম্বর সবই ভুয়া, কোটি টাকার গার্মেন্টস পণ্য নিয়ে উধাও কাভার্ডভ্যানের চালক-হেলপার

সীতাকুণ্ডে এক কোটি ১৩ লাখ টাকার রপ্তানি গার্মেন্টস পণ্য নিয়ে উধাও হয়ে গেছে কাভার্ডভ্যান চালক ও হেলপার।

বুধবার (৯ নভেম্বর) বুধবার বিকেলে এ ঘটনায় সীতাকুণ্ড মডেল থানায় মামলা করা হয়। মামলার পর কাভার্ডভ্যানটি উদ্ধার করা হয়। তবে এ ঘটনায় চালক ও হেলপারকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। তাদের ব্যবহৃত মুঠোফোনও বন্ধ রয়েছে।

ঘটনা সূত্রে জানা গেছে, গত ৬ নভেম্বর গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর থানার লক্ষ্মীপুরার স্প্যারো এপারেলস লিমিটেড গার্মেন্টস থেকে ২৯৮টি কার্টনভর্তি চিফ হাফ প্যান্ট বিদেশে রপ্তানির জন্য চট্টগ্রাম বন্দরের এপিএল কনটেইনারে পাঠানো হচ্ছিল। কিন্তু পণ্য বোঝাই কাভার্ডভ্যানটি নির্দিষ্ট ঠিকানায় পৌঁছাইনি। পরে মালিকপক্ষ খোঁজ নিয়ে জানতে পারে ভাড়া করা কাভার্ডভ্যানটি উপজেলার ফৌজদারহাট এলাকার শুকতারা রেস্তোরাঁর সামনে পড়ে আছে। এরপর মালিকপক্ষের লোকজন ফৌজদারহাট পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যদের নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পান গাড়ির পেছনের লক খোলা অবস্থায় ভেতরে ৫টি কার্টনে মাত্র ২০০ পিস প্যান্ট রয়েছে। বাকি মালামাল নেই।

আরও পড়ুন: প্লাস্টিকের বস্তায় কাভার্ডভ্যানের ভেতর আসছিল গাঁজা—র‌্যাবের তল্লাশিতে ধরা

এ ঘটনার পর আজ (বুধবার) স্প্যারো এপারেলস লিমিটেডের কমার্শিয়াল ম্যানেজার মো. শাকিল আহম্মেদ বাদী হয়ে সীতাকুণ্ড থানায় মামলা করেন।

Yakub Group

মামলায় উল্লেখ করা হয়, কাভার্ডভ্যানে এক কোটি ১৩ লাখ ৬১ হাজার ৮৯৯ টাকার পণ্য ছিল। পণ্যগুলো নগরের পতেঙ্গায় নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পণ্যগুলো চালক-হেলপার লুট করে নিয়ে গেছে।

এ বিষয়ে সীতাকুণ্ড থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তোফায়েল আহমেদ আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, কাভার্ডভ্যানটি উদ্ধার করা হয়েছে। তবে গাড়ির কাগজপত্র ও নম্বর দুটোই ভুয়া ছিল। আমরা ধারণা করছি, চালক ও হেলপার মিলে পণ্যগুলো চুরি করে বিক্রি করে দিয়েছে। এ ঘটনায় তদন্ত করা হচ্ছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এসএস/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm